দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা সিলেট, আল্টিমেট ভ্রমণ গাইড

DuSai Resort & Spa

দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা (DuSai Resort & Spa) বাংলাদেশের প্রথম বিশ্বমানের  ৫ তারকা স্ট্যান্ডার্ড বুটিক ভিলা রিসোর্ট, এবং এটি সিলেটের অন্যতম দর্শনীয় স্থান। এই রিসোর্টটি হাজার হাজার গাছের মাঝে এবং পাহাড়ের উপরে একটি ছোট বনের মধ্যে অবস্থিত। রিসোর্ট এর দক্ষিণে রয়েছে দুটি বড় মাছের পুকুর এবং এর উত্তর দিকে রয়েছে মৌলভীবাজার জেলার চা বাগান। দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা বাংলাদেশের সবচেয়ে বিচিত্র এবং আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত রিসোর্ট। আপনার প্রিয়জনদের নিয়ে ছুটি কাটানোর জন্য  একটি আদর্শ জায়গা হতে পারে সিলেটের এই রিসোর্ট। এটি এমন একটি স্থান যা আপনাকে রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা গড়ে তুলতে সাহায্য করবে৷ এই রিসোর্টের কর্মীরা সব সময় চেষ্টা করে অতিথিরা যেন তাদের প্রত্যাশিত সেবা এবং রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা নিয়ে বাড়ি ফিরে যেতে পারে। অতিথিরা দুসাই রিসোর্টে এলে তাদের একটি আশ্চর্যজনক এবং চমক প্রদক অভিজ্ঞতা তৈরি হয়। এর অন্য কারন এইখানের পরিবেশ, অভ্যন্তরীণ সাজসজ্জা, গৃহসজ্জা এবং অতিথি সেবার গুণমান দুসাই রিসোর্টকে বাংলাদেশের অন্য যেকোনো রিসোর্ট থেকে সম্পূর্ণ আলাদা করে তুলেছে। অতিথিরা পরিবার, দম্পতি এবং বন্ধুদের গ্রুপ নিয়ে যেকোনো সময় চলে আসতে পারেন এই রিসোর্টে। ২০১৬ সালে দুসাই রিসোর্টকে ওয়ার্ল্ড লাক্সারি হোটেল হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান এবং অ্যাওয়ার্ড দেয়া হয়। এটি এশিয়ার সেরা বিলাসবহুল ফরেস্ট রিসোর্ট হিসাবে মনোনীত করা হয়। যা আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের।

সুযোগ সুবিধা

দুসাই রিসোর্ট অতিথিদের সুযোগ সুবিধা এবং সেবা নিয়ে আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংশিত। নিম্নে তাদের বেশ কিছু সুবিধা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলঃ 

বডি স্পা

এই রিসোর্টের একটি সুবিধার মধ্যে রয়েছে ৫টি রুম বিশিষ্ট হোলিস্টিক  বডি স্পা সেন্টার। অতিথিদের শরীর এবং মন রিল্যাক্সমেন্ট দেয়ার জন্য বডি স্পা দেশে বিদেশে বেশ জনপ্রিয়।এই রিসোর্টের স্পা এর রুমগুলো বাশ এবং খরের মাধ্যমে তৈরি করা হয়েছে। এইখানে অতিথিদের জন্য ম্যাজেস্টিক থাই এক্সপেরিয়েন্স থেকে শুরু করে এক্সোটিক বডি স্পা এর ব্যবস্থা রয়েছে। অতিথিরা তাদের পছন্দ মত বডি স্পা এর ট্রিটমেন্টগুলো বেছে নিতে পারবেন।

জিম

জিম প্রেমী মানুষদের জন্য রয়েছে জিম এর ব্যবস্থা। পুরুষ এবং মহিলাদের জন্য পৃথক লকার রুম সহ জিম করার জন্য অত্যাধুনিক সরঞ্জাম রয়েছে এই রিসোর্টে। সকাল ৭টা থেকে ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকে এই জিম সেন্টারটি।

রিলেটেডঃ গ্রান্ড সুলতান রিসোর্ট সম্পর্কে যা যা জানা দরকার!

সুইমিংপুল

দুসাই রিসোর্ট এর একটি অন্যতম আকর্ষণ হচ্ছে এদের সুইমিংপুল। এই সুইমিংপুলটি তিনটি ভিন্ন ভিন্ন স্তরে বিভক্ত। গোসল বা সাতার কাটার জন্য পুরুষ এবং মহিলাদের জন্য পৃথক পুলের ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়াও  বাষ্প পানির সুবিধা এবং জিমনেসিয়াম লকার সহ আলাদা পুরুষ ও মহিলাদের জন্য  চেঞ্জিং রুম রয়েছে।

দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা সুইমিং পুল
ছবিঃ দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা সুইমিং পুল

সিনেপ্লেক্স

৫৬ জন আসন বিশিষ্ট একটি সিনেপ্লেক্সে এর ব্যবস্থা রয়েছে যার মাধ্যমে আপনারা পরিবার পরিজন এবং বন্ধুবান্ধব নিয়ে একটি চমৎকার সময় কাটাতে পারবেন এইখানে। এই সিনেপ্লেক্সটিতে রয়ছে উন্নত মানের সাউন্ড সিস্টেম। দৈনিক প্রায় সব মিলিয়ে ৩০০ জন মানুষ এই সিনেপ্লেক্সটিতে সিনেমা উপভোগ করতে পারবেন।

অ্যাম্ফিথিয়েটার

টি ভ্যালি রেস্তোরাঁর পিছনে অবস্থিত ওপেন এয়ার অ্যাম্ফিথিয়েটার, এটি আপনার আউটডোর বিনোদনের জন্য তৈরি করা হয়েছে। এখানে বারবিকিউ পার্টি করার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়াও আরও বেশ কিছু সুযোগ সুবিধা রয়েছে যেমনঃ রিসোর্টের আশেপাশের পরিবেশ এবং সৌন্দর্য ঘুরে দেখার জন্য  ১.৪ কিলোমিটার দীর্ঘ বৃত্তাকার জায়গা রয়েছে।

খেলাধুলা

অতিথিদের খেলাধুলা করার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে যেমনঃ টেনিস খেলার জন্য টেনিস কোর্ট। ব্যাডমিন্টন খেলার জন্য রয়েছে দুটি ব্যাডমিন্টন কোর্ট। সাইক্লিং করে আশেপাশের সুন্দর পরিবেশ উপভোগ করার জন্য ব্যবস্থা রয়েছে। টেবিল টেনিস এবং  ফুটবল খেলার জন্যও ব্যবস্থা রয়েছে। শিশুদের  জন্য একটি নার্সারি খেলার মাঠ রয়েছে।

দুসাই রিসোর্ট পুল বোর্ড
ছবিঃ খেলার জন্য পুল বোর্ড

আরও সুবিধার মধ্যে রয়েছে

  • নামাজ আদায় করার একটি জন্য শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত মসজিদ রয়েছে।
  • এছাড়াও সম্পূর্ণ রিসোর্ট প্রাঙ্গনে বিনামূল্যে ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্ক এর  ব্যবস্থা রয়েছে।

সিলেটের দর্শনীয় স্থান

রিসোর্টে আসবেন কিন্তু সিলেটের আশেপাশের দর্শনীয় স্থানে যাবেন না, সেটাতো হতে পারে না। আপনাদের সুবিধার্থে এই রিসোর্ট থেকে যাওয়া যায় এমন দর্শনীয় স্থানগুলোর নাম নিম্নে দেয়া হলঃ 

  • মাধবপুর লেক।
  • লাউয়াছড়া রেইন ফরেস্ট।
  • শ্রীমঙ্গলে চা বাগান।
  • নীল কণ্ঠটি স্টলে সাত স্তরের চা।
  • শ্রীমঙ্গলের মনিপুরী গ্রামের বাজার।

রুম এর ভাড়া

দুসাই রিসোর্টে রুম ভাড়া করার জন্য সর্বনিম্ন রুম এর রেট ৯,৮০০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৪০,০০০ টাকা পর্যন্ত। নিম্নে এই রিসোর্ট এর রুম নাম, ভাড়া এবং রুম এর আকার অনুযায়ী কত জন থাকতে পারবেন তা নিয়ে নিম্নে আলোচনা করা হলঃ

১) রুমের নামঃ সুপিরিয়র কিং

ভাড়াঃ ৯,৮০০ টাকা (১ রাতের জন্য)।

 ধারন ক্ষমতাঃ ২ জন প্রাপ্তবয়স্ক এবং ১জন শিশু (একটি রুম)।

২) রুমের নামঃ সুপিরিয়র টুইন

ভাড়াঃ ৯,৮০০ টাকা (১ রাতের জন্য)।

ধারন ক্ষমতাঃ ২ জন প্রাপ্তবয়স্ক (একটি রুম)

৩) রুমের নামঃ প্রিমিয়াম কিং

ভাড়াঃ ১১,২০০ টাকা (১ রাতের জন্য)।

ধারন ক্ষমতাঃ ২ জন প্রাপ্তবয়স্ক এবং ১জন শিশু (একটি রুম)।

৪) রুমের নামঃ প্রিমিয়াম টুইন

ভাড়াঃ ১১,২০০ টাকা (১ রাতের জন্য)।

ধারন ক্ষমতাঃ ২ জন প্রাপ্তবয়স্ক (একটি রুম)।

৫) রুমের নামঃ ডিউলেক্স কুইন

ভাড়াঃ ১২,৬০০ টাকা (১ রাতের জন্য)।

ধারন ক্ষমতাঃ ২ জন প্রাপ্তবয়স্ক (একটি রুম)

৬) রুমের নামঃ ডিউলেক্স কিং

ভাড়াঃ ১৪,০০০ টাকা (১ রাতের জন্য)।

ধারন ক্ষমতাঃ ২ জন প্রাপ্তবয়স্ক এবং ১জন শিশু (একটি রুম)।

৭) রুমের নামঃ স্যুট সি

ভাড়াঃ ১৬,৮০০ টাকা (১ রাতের জন্য)।

ধারন ক্ষমতাঃ ২ জন প্রাপ্তবয়স্ক এবং ১জন শিশু (একটি রুম)।

৮) রুমের নামঃ স্যুট বি, (২বি/আর)

ভাড়াঃ ২১,০০০ টাকা (১ রাতের জন্য)।

ধারন ক্ষমতাঃ ৪ জন প্রাপ্তবয়স্ক এবং ১জন শিশু (একটি রুম)।

৯) রুমের নামঃ স্যুট এ, (২বি/আর)

ভাড়াঃ ২১,০০০ টাকা (১ রাতের জন্য)।

ধারন ক্ষমতাঃ ৪ জন প্রাপ্তবয়স্ক এবং ১জন শিশু (একটি রুম)।

১০) রুমের নামঃ হানিমুন ভিলা

ভাড়াঃ ৪০,০০০ টাকা (১ রাতের জন্য)।

ধারন ক্ষমতাঃ ২ জন ২ জন প্রাপ্তবয়স্ক (একটি রুম)।

রিলেটেডঃ নাজিমগড় ওয়াইল্ডারনেস রিসোর্ট ভ্রমণ গাইড

রুমের সুযোগ-সুবিধা

দুসাই রিসোর্টে  সব ধরনের রুমেরই আপনি মোটামুটি একই ধরনের সুবিধা পাবেন। নিম্নে রুমের সুযোগ সুবিধা নিয়ে নিম্নে আলোচনা করা হলঃ 

  • শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত রুম।
  • ৩২ ইঞ্চি এলইডি টিভি।
  • বিনামূল্যে হাই স্পিড ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট অ্যাক্সেস।
  • মিনি বার এবং রুমে অ্যালকোহল পানের সুবিধা।
  • চা ও কফি তৈরির ব্যবস্থা রয়েছে।
  • ২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস।
  • সুপিরিয়র রুম ব্যতীত সব রুমেই ব্যক্তিগত বারান্দা রয়েছে।

বাথরুম

  • চুল শুকানোর যন্ত্র।
  • হারবাল বাথ জেল এবং শ্যাম্পু।
  • গোসলের পোশাক এবং জুতা।
  • ডিলাক্স রুমগুলোর ব্যালকনিতে আউটডোর বাথটাব রয়েছে।
দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা বাথ
ছবিঃ দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা বাথরুম

খাবার এর ব্যবস্থা

ভোজন রসিকদের জন্য দুসাই রিসোর্ট এর রেস্টুরেন্ট অন্যতম জায়গা হতে পারে। এই রিসোর্টে বিভিন্ন ধরনের রেস্টুরেন্ট রয়েছে। নিম্নে রিসোর্ট এর বিভিন্ন রেস্টুরেন্ট নিয়ে আলোচনা করা হলঃ 

বানানা লিফ রেস্টুরেন্ট

এটি রিসোর্টের মূল হোটেল ভবনের নিচতলায় এই রেস্টুরেন্ট অবস্থিত। এখানে অতিথিরা বিভিন্ন ধরনের খাবারের স্বাদ গ্রহন করতে পারবে যেমনঃ কন্টিনেন্টাল, চাইনিজ, থাই এবং ভারতীয় খাবারও পরিবেশন করা হয়।

টি ভ্যালি রেস্টুরেন্ট

এই রেস্টুরেন্টটি একটি ছোট পাহাড়ের ঢালে অবস্থিত। এই রেস্টুরেন্টটি খড় এবং কাঠ দিয়ে তৈরি। রেস্টুরেন্টটিতে লাইভ কিচেন এর ব্যবস্থা রয়েছে। যেখানে অতিথিদের সামনে সরাসরি রান্না করা হয় এবং সীমিত বৈচিত্র্যের কন্টিনেন্টাল এবং বাংলাদেশী খাবার পরিবেশন করা হয়। এখানে বুফে ব্রেকফাস্টও দেওয়া হয়।

রিলেটেডঃ গ্রান্ড সেলিম রিসোর্ট সিলেট, ভ্রমণ গাইড

ফরেস্ট পাব

এই রেস্টুরেন্টটি হল একটি বার। এখানে বিভিন্ন ধরণের ককটেল, মকটেল, বিয়ার, লাল এবং সাদা ওয়াইন পরিবেশন করা হয়। বিদেশী  অতিথিদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে। তারা  তাদের কক্ষে অ্যালকোহলযুক্ত পানি পান করার জন্য বিশেষভাবে অনুমতি দেওয়া হয়।

দি পুল ক্যাফে

এটি এমন একটি পুল যেখানে পুলের অতিথিদের স্ন্যাকস, কোমল পানীয় এবং জুস পরিবেশন করা হয়।

দি গার্ডেন লাউঞ্জ

এটি একটি আরামদায়ক লাউঞ্জ বা বিশ্রামাগার, যেখানে অতিথিদের জন্য সন্ধ্যার সময় জল খাবার, গরম, ঠান্ডা পানীয় এবং স্ন্যাকস পরিবেশন করা হয়।

শিশুদের জন্য তথ্য

১২ বছর পর্যন্ত যে কোনো একটি শিশু একই বিছানা ভাগ করে অভিভাবকদের সাথে রুমে থাকতে পারবে। দুটি শিশুর জন্য অতিরিক্ত বিছানা  ৩,০০০ টাকা নেওয়া হবে। বুকিংয়ের সময় শিশু বয়স নিশ্চিত করতে হবে। ৭ থেকে ১২ বছরের শিশুদের জন্য সেট/বুফে ব্রেকফাস্টের জন্য অর্ধেক টাকা প্রযোজ্য হবে।

ড্রাইভার ও গৃহকর্মীদের তথ্য

রিসোর্ট কক্ষে কোন গৃহকর্মীকে রাখা যাবে না। গৃহপরিচারিকা বা গৃহকর্মীদের জন্য পৃথক আবাসন কোয়ার্টার রয়েছে রিসোর্ট প্রাঙ্গনে। সেখানে তারা তিনবেলা খাবার সুবিধা সহ কোয়ার্টারে থাকতে পারবেন।

ড্রাইভারের জন্য আলাদা থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। তাদের জন্যও খাবারের ব্যবস্থা রয়েছে। রিসোর্ট প্রাঙ্গনে ড্রাইভারদের অনুমতি দেওয়া হয় না।

রাতে দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা
ছবিঃ রাতে দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা

বুকিং বাতিলিকরন

কোন কারনে যদি আপনি আপনার বুকিংটি বাতিল করতে চান তাহলে দুসাই রিসোর্ট এর বেশ কিছু নিয়ম রয়েছে। নিম্নে সেই নিয়ম গুলো নিয়ে আলোচনা করা হলঃ 

  • রিসোর্টে আসার ৭দিন আগে বা তারও আগে যদি বুকিং বাতিল করেন তাহলে কোন চার্জ কেটে নেয়া হবে না।
  • ৭ দিনের কম সময় যদি বুকিং বাতিল করেন তাহলে একটি রুমের ১ রাত থাকার চার্জ কেটে নেয়া হবে।
  • ৩ দিন বা তার কম সময়ে যদি বুকিং বাতিল করেন তাহলে সম্পূর্ণ বুকিং চার্জই রেখে দেয়া হবে। কোন প্রকার টাকা ফেরত দেয়া হবে না।

বুকিং পদ্ধতি

বিভিন্ন মাধ্যমে অতিথিরা এই রিসোর্ট বুকিং করতে পারবেন। দেশি বিদেশি অতিথিরা খুব সহজে ব্যাংকিং এর মাধ্যমে এই রিসোর্ট বুক করতে পারবেন। নিম্নে এই রিসোর্টের বুকিং পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করা হলঃ 

  • বিকাশ।
  • ব্রাক ব্যাংক।
  • ডাচ বাংলা ব্যাংক।
  • ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ।
  • ইসলামী ব্যাংক এম ক্যাশ।
  • ব্যাংক এশিয়া।
  • সিটি টাচ।


দুসাই রিসোর্ট নিয়ে ভিডিও ব্লগ

বিদেশি অতিথিদের জন্যও সহজ ভাবে বুকিং এর ব্যবস্থা রয়েছে যেমন

  • আমেরিকান এক্সপ্রেস।
  • ফাস্ট ক্যাশ।
  • কিউ ক্যাশ।
  • এমটিবি।
  • মাস্টার কার্ড।

বুকিং এর জন্য লিংকঃ দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা সিলেট

যোগাযোগ

দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা
শ্রীমঙ্গল রোড নিতেশ্বর, গিয়াশনগর
মৌলভীবাজার, সিলেট, বাংলাদেশ।
টেলিফোন নাম্বারঃ ৮৮০৮৬১৬৪১০০
হটলাইনঃ ০১৬১৭০০৫৫১১
ইমেইলঃ [email protected]

যেভাবে যাবেন

দুসাই রিসোর্টে যাওয়ার জন্য চারটি উপায় রয়েছে। নিম্নে সেই উপায়গুলো নিয়ে আলোচনা করা হলঃ 

হেলিকপ্টার

এই রিসোর্টে একটি হেলিপ্যাড এর ব্যবস্থা রয়েছে। যার মাধ্যমে অতিথিরা সরাসরি হেলিকপ্টারে করে এই রিসোর্টে চলে আসতে পারবেন। ঢাকা থেকে রিসোর্ট হেলিপ্যাড প্রায় ৪০ মিনিটের ফ্লাইট।

বিমান

ঢাকা থেকে বিমানে সিলেটে আসতে প্রায় ৪৫ মিনিট এর মত সময় লাগে। তারপর রিসোর্ট কার বা ভ্যানে করে রিসোর্টে আসতে প্রায় থেকে প্রায়  ১ ঘন্টা ৪৫ মিনিটের মত সময় লাগে।

গাড়ি

অতিথিরা যদি গাড়িতে করে আসতে চায় তাহলে ৪ ঘন্টা থেকে প্রায় ৪.৩০ মিনিট এর মত সময় লাগবে। ঢাকা থেকে গাড়ি নিয়ে যেভাবে আসবেন তা নিম্নে বিস্তারিত আলোচনা করা হলঃ 

– কুড়িল ফ্লাইওভার টার্নপাইক থেকে কাঞ্চন ব্রিজ হয়ে নতুন পূর্বাচল আবাসিক এলাকা থেকে ১২  কিলোমিটার এর রাস্তা।

– কাঞ্চন ব্রিজ থেকে ভুলতা মোড়, রূপগঞ্জ – ৭ কিলোমিটার এর রাস্তা।

– ভুলতা মোড় থেকে মিরপুর মোড়, হবিগঞ্জ – ১৩৫ কিলোমিটার এর রাস্তা।

– মিরপুর চৌরাস্তা থেকে শ্রীমঙ্গল মোড় – ২৪ কিলোমিটার এর রাস্তা।

– শ্রীমঙ্গল মোড় থেকে দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা -১৪ কিলোমিটার এর রাস্তা মৌলভীবাজার শহরের দিকে। মৌলভীবাজার থেকে খুব সহজেই দুসাই রিসোর্টে চলে আসতে পারবেন।

ট্রেন

‘পারাবত’ বা ‘কালনী’ ট্রেনের মাধ্যমে প্রথমে সিলেটে চলে আসতে হবে। এর জন্য প্রথমে ঢাকা বিমানবন্দর ট্রেন স্টেশন থেকে শ্রীমঙ্গল স্টেশন পর্যন্ত চলে আসলেই, রিসোর্ট কার বা ভ্যানে অল্প ১৫ কিলোমিটার এর রাস্তা ড্রাইভ করে রিসোর্টে চলে আসতে পারবেন।

ত বন্ধুরা আপনারার যদি দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা সিলেট, আল্টিমেট ভ্রমণ গাইড লেখাটি পড়ে ভালো লাগে তাহলে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

যাবতীয় তথ্যঃ দুসাই রিসোর্ট এন্ড স্পা সিলেট, ওয়েবঃ https://www.dusairesorts.com/

বিঃদ্রঃ  এই ব্লগের প্রত্যেকটা ব্লগ পোস্ট Sylhetism ব্লগের নিজস্ব ডিজিটাল সম্পদ। কেউ ব্লগের কোন পোস্ট কিংবা আংশিক অংশ ব্লগের কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া কপি পেস্ট করে অন্য কোথাও প্রকাশ করলে ব্লগ কর্তৃপক্ষ ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা করার অধিকার রাখে। এবং অবশ্যই কপিরাইট ক্লাইম করে যে মাধ্যমে এই ব্লগের পোস্ট প্রকাশ করা হবে সেখানেও কমপ্লেইন করা হবে।

এই ব্লগের কোন লেখায় তথ্যগত কোন ভুল থাকলে আমাদের Contact পেইজে সরাসরি যোগাযোগ করুন, আমরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তথ্য যাচাই করে লেখা আপডেট করে দিবো।

এই ব্লগের কোন স্বাস্থ বিষয়ক পোস্টের পরামর্শ নিজের বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করার আগে অবশ্যই বিশেষজ্ঞদের মতামত নিবেন, আমরা স্বাস্থ বিষয়ে কোন বিশেষজ্ঞ না, আমাদের উদ্দেশ্য ও লক্ষ হচ্ছে সঠিক তথ্য পরিবেশন করা। সুতারাং কোন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার দায়ভার অবশ্যই আমরা নিবো না।

ধন্যবাদ, ব্লগ কর্তৃপক্ষ।

Author

Leave a Comment

Your email address will not be published.

You cannot copy content of this page