লাইব্রেরিয়ান কোর্স কোথায় করা যায়? ২০২২

লাইব্রেরিয়ান কোর্স কোথায় করা যায়

লাইব্রেরিয়ান হচ্ছে  এমন একজন ব্যাক্তি, যিনি পেশাগত ভাবে একটি লাইব্রেরিতে কাজ করে। তার প্রধান দায়িত্বগুলোর মধ্যে  কয়েকটি হলো বই সংগ্রহ করা, পাঠকদের তথ্য সংগ্রহ করা এবং পাঠককে বই এর  ব্যাপারে সাহায্য সহযোগিতা করা। যাই হোক এই আর্টিকেলে আজকে আমরা জানবো লাইব্রেরিয়ান কি বা কারা, লাইব্রেরিয়ান কোর্স কি, লাইব্রেরিয়ান কোর্স কোথায় করা যায় ইত্যাদি ইত্যাদি।

লাইব্রেরিয়ানের প্রকারভেদ

প্রধানত ৪ ধরনের লাইব্রেরিয়ান হয়ে থাকে। নিম্নে এই ৪ ধরনের লাইব্রেরিয়ান নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলঃ 

পাবলিক লাইব্রেরিয়ান

পাবলিক লাইব্রেরিতে সাধারনত সব ধরনের শ্রেণী পেশার মানুষ বিচরন করে থাকে। এখানে শিশু, কিশোর, প্রাপ্তবয়স্ক এবং বয়স্ক মানুষ সহ সকল বয়সের জনসাধারণের পাবলিক লাইব্রেরি উম্মুক্ত থাকে। পাবলিক লাইব্রেরির লাইব্রেরিয়ানরা তাদের লাইব্রেরি সংগঠিত করতে, নতুন পঠন সামগ্রী ক্যাটালগ করতে এবং তাদের লাইব্রেরির ডাটাবেস সংগ্রহ করতে এবং নতুন বইয়ের বিবরণ লিখতে সহায়তা করে থাকে। 

স্কুল লাইব্রেরিয়ান

এই সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এর লাইব্রেরিগুলোতে  লাইব্রেরিয়ানরা প্রাথমিক, মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতে সরকারি বা বেসরকারি ভাবে কাজ করতে পারে। স্কুল পর্যায়ে, এদের কাজের একটি বড় অংশ হতে পারে কীভাবে একটি লাইব্রেরি সুন্দর ভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করা যায়  এবং শিক্ষার্থীদের  মধ্যে বই পড়ার প্রতি ভালোবাসা জাগিয়ে তুলতে সাহায্য করা যায়। ক্লাসের অংশ হিসাবে, তারা শিক্ষার্থীদের শেখাতে পারে কিভাবে লাইব্রেরি ডাটাবেস এবং গবেষণা সরঞ্জাম ব্যবহার করতে পারা যায়।

একাডেমিক লাইব্রেরিয়ান

একাডেমিক লাইব্রেরিয়ান হলো যারা কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে কাজ করে। এদের প্রধান কাজগুলোর মধ্যে রয়েছে শিক্ষার্থীদের যে কোন জিজ্ঞাসার উত্তর দেওয়া। লাইব্রেরি সিস্টেম এবং কম্পিউটারের ডাটাবেসগুলো ব্যবহার করা। শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকদের কম্পিউটার সরঞ্জাম ব্যবহারে সহায়তা করা, সাহিত্য অনুসন্ধান পরিচালনা করতে সাহায্য করা এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দায়িত্বের সাথে সংরক্ষণ করা ইত্যাদি।

বিশেষত্ব-কেন্দ্রিক লাইব্রেরিয়ান

এই লাইব্রেরিগুলো বিশেষ জায়গায় অবস্থান করে বলে এই লাইব্রেরিগুলোকে বিশেষত্ব-কেন্দ্রিক লাইব্রেরি বলা হয়ে থাকে। এই লাইব্রেরিগুলি সাধারণত চিড়িয়াখানা এবং এমনকি জাদুঘরের মতো জায়গায় পাবলিক লেভেলে অবস্থান করে। এছাড়াও, সরকারী বড় বড় সংস্থাতেও এই লাইব্রেরি থাকতে পারে। এই লাইব্রেরির লাইব্রেরিয়ানদের কাজ হল গবেষণা এবং ঐতিহাসিক রেকর্ড নিয়ে কাজ করা। গবেষণা এবং ঐতিহাসিক  রেকর্ড দায়িত্বের সাথে সংরক্ষন করা। 

লাইব্রেরিয়ান কোর্স কোথায় করা যায়
লাইব্রেরী

মাসিক বেতন

সরকারি, বেসরকারি বা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান অনুযায়ী  একজন লাইব্রেরিয়ানের মাসিক বেতন ভিন্ন হয়ে থাকে। আপনি যদি এই পেশায় যোগ দেন তাহলে আপনাকে এসিস্ট্যান্ট বা লাইব্রেরি সহকারী পদে যোগ দিতে হবে। মাসিক বেতন প্রথম অবস্থায় আনুমানিক ১৫,০০০-২০,০০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। তবে আপনার  অভিজ্ঞতা ও কারিগরি দক্ষতার সাথে আপনার প্রোমোশন হতে থাকবে এতে করে আপনার বেতন বাড়তে থাকবে। 

লাইব্রেরিয়ান ক্যারিয়ার

আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে লাইব্রেরিয়ান হওয়া খুব একটা মঙ্গলজনক নাও হতে পারে। এর একটি বড় কারন হচ্ছে  আমাদের দেশে গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা অনেক কম।  ফলাফল হিসেবে  লাইব্রেরির সংখ্যাও অনেক কম। যাইহোক, আপনি যদি  এই পেশায় কাজ করতে চান  তাহলে আপনাকে এসিস্ট্যান্ট বা সহকারী লাইব্রেরিয়ান পদে যোগদান করতে হবে। আপনি যদি আপনার ভাল কাজের দক্ষতে দেখাতে পারেন, তাহলে এই পেশার পদের সর্বোচ্চ পদ হচ্ছে চিফ লাইব্রেরিয়ান অর্থাৎ প্রধান লাইব্রেরিয়ান। ভাল কাজ করতে পারলে আপনি এই পদেও কাজ করতে  পারবেন।

বর্তমানে আমাদের সরকার আধুনিক গবেষনাগার প্রতিষ্ঠানে কাজ করে যাচ্ছে। তাই ধীরে ধীরে  লাইব্রেরির সংখ্যাও অনেক বেড়ে যাচ্ছে। বর্তমানে অনেক লাইব্রেরি আধুনিক প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে  পরিচালনা করা হচ্ছে। দেশের অনেক লাইব্রেরিই ডিজিলাটাইজড হয়ে যাচ্ছে। এদের ব্যবস্থাপনার জন্য দক্ষ লাইব্রেরিয়ান প্রয়োজন। জ্ঞানভিত্তিক কাজের পরিবেশ যদি চান তাহলে এই পেশা হতে পারে আপনার আদর্শ ক্যারিয়ার গড়ার জায়গা।

আরো পড়ুনঃ কর্মসংস্থান ব্যাংক কি? কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পাওয়ার বিভিন্ন উপায়।

দায়িত্ব এবং কর্তব্য

একজন লাইব্রেরিয়ানের বিভিন্ন ধরনের দায়িত্ব এবং কর্তব্য থাকে। আপনি যদি এই পেশায় আসতে চান তাহলে তাদের দায়িত্ব সম্পর্কে আগে থেকেই জেনে রাখা ভাল। নিম্নে তাদের দায়িত্ব এবং নিয়ে আলোচনা করা হলঃ 

  • লাইব্রেরি ব্যবহারকারীদের জন্য গ্রাহক সেবা প্রদান করা।
  • গবেষণা পরিচালনা করতে পাঠকদের সহায়তা করা।
  • সহকারী গ্রন্থাগারিক এবং অন্যান্য কর্মীদের কাজ তদারকি করা এবং তাদের কাজের দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়া।
  • সদস্য এবং কর্মীদের সকল কাজের সহজে অ্যাক্সেস করার জন্য একটি অনলাইন ডাটাবেস তৈরি করা।
  • বই সম্পর্কে লাইব্রেরি ব্যবহারকারীদের পরামর্শ প্রদান করা।
  • যুবক এবং প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য মজাদার এবং শিক্ষামূলক প্রোগ্রাম তৈরি করা।
  • নতুন ইনভেন্টরি ক্যাটালগ করা এবং সেই অনুযায়ী ডাটাবেস আপডেট করা।
  • বই সরবরাহ কোম্পানি থেকে সহজে অর্ডার নেয়ার ব্যবস্থা করা।
লাইব্রেরিয়ান কোর্স কোথায় করা যায়
একটি আধুনিক লাইব্রেরি

লাইব্রেরিয়ান কোর্স কোথায় করা যায়

আপনি যদি একজন লাইব্রেরিয়ান হওয়ার ইচ্ছা পোষণ করে থাকেন, তাহলে অবশ্য আপনাকে এই বিষয়ে শিক্ষাগত যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। মনে প্রশ্ন আসতে পারে লাইব্রেরিয়ান কোর্স কোথায় করা যায়? ওয়েল, আপনাকে অবশ্যই আগে স্বীকৃত কোন বিশ্ববিদ্যালয় বা প্রতিষ্ঠান থেকে ইনফরমেশন সায়েন্স এবং লাইব্রেরি ম্যানেজমেন্টে অনার্স অথবা ডিপ্লোমা-ইন-লাইব্রেরি সাইন্স নিয়ে পড়াশুনা করে শিক্ষাগত যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। আপনাদের সুবিধার্তে বেশ কিছু সরকারি এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম দেয়া হল, সেখান থেকে আপনারা এই বিষয়ে  অনার্স, মাস্টার্স অথবা ডিপ্লোমা করে নিতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক কি? কীভাবে লোন পাবেন? বিস্তারিত গাইড

লাইব্রেরিয়ান কোর্স এর জন্য  সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এর তালিকা।

যদি মনে প্রশ্ন থাকে কোন কোন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে লাইব্রেরিয়ান কোর্স কোথায় করা যায় তাহলে নিচের তালিকাভুক্ত যেকোন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আপনার প্রয়োজনীয় লাইব্রেরিয়ান কোর্সটি করতে পারেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম 
স্থান
১) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।
ঢাকা। 
২) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়।
রাজশাহী।
৩) নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যায়।
নোয়াখালী।
৪) ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি অফ চিটাগং।
চিটাগং।
লাইব্রেরিয়ান কোর্স এর জন্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এর তালিকা
বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম 
স্থান
১) এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ।
ঢাকা
২) ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।
ঢাকা।
৩) ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি।
ঢাকা।
৪) ঈশা খাঁ ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।
কিশোরগঞ্জ।
৫) খাজা ইউনুস আলী ইউনিভার্সি।
সিরাজগঞ্জ।
৬) রয়্যাল ইউনিভার্সিটি অফ ঢাকা।
ঢাকা।
লাইব্রেরিয়ান কোর্স করার জন্য  ন্যাশনাল(NU) বিশ্ববিদ্যালয়ের এর তালিকা।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে লাইব্রেরিয়ান কোর্স করার জন্য মোট ২৪টি কলেজের নাম বিভাগ এবং জেলা সহকারে এর তালিকা নিম্নে দেয়া হলঃ 

কলেজের নাম
স্থান
কলেজের নাম
স্থান
১। ইনস্টিটিউট ফর লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট
ঢাকা
১৪। প্রফেশনাল কলেজ।
বগুড়া
২। ইনস্টিটিউট অব লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সায়েন্স
ঢাকা
১৫। বাংলাদেশ সাউথ ওয়েস্ট মডেল ইনস্টিটিউট।
যশাের
৩। নিউ মডেল ডিগ্রী কলেজ।
ঢাকা
১৬। গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট।
বরিশাল
8। লালমাটিয়া মহিলা কলেজ।
ঢাকা
১৭। ইনস্টিটিউট অব লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সায়েন্স (ইলিস)।
ময়মনসিংহ
৫। ঢাকা ইনস্টিটিট অব ফ্যাশন এন্ড টেকনােলজি।
ঢাকা
১৮। ইনস্টিটিউট অব লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সায়েন্স (ইলিস)।
রাজশাহী
৬। ড. এম মিজানুর রহমান প্রফেশনাল কলেজ।
ঢাকা
১৯। পটুয়াখালী গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান কলেজ।
পটুয়াখালী
৭। আলহাজ্ব মকবুল হােসেন ডিগ্রী কলেজ।
ঢাকা
২০। হাজীগঞ্জ আইডিয়াল কলেজ অব এডুকেশন।
চাঁদপুর
৮। ঢাকা প্রফেশনাল কলেজ।
ঢাকা
২১। সুন্দরবন কলেজ অব টেকনােলজি।
সাতক্ষীরা 
৯। ইনস্টিটিউট অব এডুকেশন, লাইব্রেরী এন্ড ম্যানেজমেন্ট (ইলাম)।
খুলনা
২২। কলেজ অব এডুকেশন।
সাতক্ষীরা
১০। ইনস্টিটিউট অব লাইব্রেরী আর্টস কমার্স এন্ড সায়েন্স (ইলাক্স )। 
খুলনা
২৩। জাস ইনস্টিটিউট সিলেট।
সিলেট
১১। বগুড়া লাইব্রেরী সায়েন্স কলেজ।
বগুড়া
২৪। মডার্ন ইনস্টিটিউট অব লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সায়েন্স।
জয়পুরহাট
১২। ইনস্টিটিউট অব লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সায়েন্স।
মাদারীপুর
২৫। গাজীপুর লাইব্রেরী সায়েন্স এন্ড প্রফেশনাল ইনস্টিটিউট।
গাজীপুর
১৩। উপমা ইন্সটিটিউট অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলোজী।
রংপুর


Library Science in NU College List in BD, লাইব্রেরি স্যাইন্সসে ভর্তির জন্য কলেজের তালিকা

ডিপ্লোমা-ইন-লাইব্রেরি সায়েন্সে কোর্স করার জন্য বিভিন্ন কলেজ এর তালিকা।

আপনারা যারা ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির অধীনে লাইব্রেরি সাইন্স এর উপরে ডিপ্লোমা করতে ইচ্ছুক তাদের সুবিধার জন্য নিম্নে ওই সকল ১২ টি কলেজের নাম, কলেজ কোড, এবং যোগাযোগ ঠিকানাসহ প্রদান করা হলঃ 

কলেজের নাম
কলেজ কোড
স্থান
ঠিকানা
যোগাযোগ
১) ড. এম মিজানুর রহমান প্রফেশনাল কলেজ, 
৬৬১১
ঢাকা
৩ মেইন রড (বেড়িবাঁধ), আদাবর ঢাকা উদ্যান, মোহাম্মদপুর ঢাকা-১২০৭।
নম্বর –০১৬১১-০২০২৬৬,

০১৮৪১-০২০২৬৬

ইমেইল- [email protected]

২) হাজীগঞ্জ আইডিয়াল কলেজ অব এডুকেশন
৩৯২৪
চাঁদপুর
হাজীগঞ্জ চাঁদপুর।
নম্বর –০১৮১৪-৩৮৫১৯১,

০১৭৮৩৭০৩০৬৫

ইমেইল- [email protected]

৩) কলেজ অব এডুকেশন
০২৬৭
, সাতক্ষীরা
সাতক্ষীরা সদর উপজেলা সংলগ্ন, সাতক্ষীরা।
নম্বর – ০১৯২৩-৫৭২৫৪৩,

০১৭৫১-৩৮০১৮৮

ইমেইল-[email protected]

৪) ইনস্টিটিউট ফর লাইব্রেরি অ্যান্ড ইনফরমেশন স্টাডিজ (ইলিশ), 
২৫৭৮
রাজশাহী
তালাইমারী রাজশাহী
নম্বর – ০১৭৯৩-৯০২০২০
৫) বগুড়া লাইব্রেরি সায়েন্স কলেজ
২৭৫৪
বগুড়া
(সুলতানগঞ্জ স্কুলের পাশে) বনানী মোড়, বগুড়া।
নম্বর – ০১৭১২-১২৮৮৬৮, ০১৭১১-৩৬৩৫২৮।
৬) ইনস্টিটিউট অব প্রফেশনাল এডুকেশন
৩৭৮২
কুমিল্লা
আহমেদগ নগর, কুমিল্লা সদর দক্ষিণ, উপজেলা কুমিল্লা উপজেলা কুমিল্লা সদর দক্ষিণ –৩৫০০।  
নম্বর – ০১৭১৪ ৪৫৫ ৪৮১, ০১৫৫৮ ৭৬৯৪৪৮

ইমেইল-[email protected]

৭) জাস ইনস্টিটিউট
১৭৪১
সিলেট
৭ম তলা, আনন্দ টাওয়ার, জেল রোড, সিলেট ৩১০০।
নম্বর –০১৭১৬৪৬৭৪১৪,   ০১৯১২৮২০৩৭২ 

ইমেইল-[email protected]

৮) উপমা ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনালাজি
৩২৫৩
রংপুর
কলেজ রোড, মর্ডান মোড়, ক্যাডেট কলেজ, মহানগর, রংপুর।
নম্বর –০১৭৩৭-১১৩২৩৩
৯) গাজীপুর লাইব্রেরি সায়েন্স অ্যান্ড প্রফেশনাল ইনস্টিটিউট
৫৫৩৫
গাজীপুর
টাঙ্গাইল রোড, চৌরাস্তা, গাজীপুর।
নম্বর –০১৯১৬-৬৮৮৬৩৩
১০) মডার্ন ইনস্টিটিউট অব লাইব্রেরি ইনফরমেশন সায়েন্স (MILIS)
২৮২১
জয়পুরহাট
জয়পুরহাট-২৮২১ হাউজিং স্টেট, জয়পুরহাট সদর-৫৯০০।
নম্বর –০১৭১৬ ৬৪৪৮৩৭, 

০১৭১৪ ৬৭৬৫৫২

১১) ইনস্টিটিউট অব লাইব্রেরি অ্যান্ড ইনফরমেশন সায়েন্স
মাদারীপুর
নতুন শহর, মাদারীপুর-৭৯০০। 
নম্বর –০১৭১৬৭৭১৮০৮
১২) এস এফ গ্রন্থাগার ও তথ্যবিজ্ঞান কলেজ
৩৪৬০
দিনাজপুর
ড়ামাগুড়া (নয়াপাড়া) নবাবগঞ্জ, দিনাজপুর।
নম্বর –০১৭৫৪-১৬৫৪০০

পরিশেষেঃ যদি লাইব্রেরিয়ান কোর্স কোথায় করা যায় আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

বিঃদ্রঃ এই ব্লগের প্রত্যেকটা ব্লগ পোস্ট Sylhetism ব্লগের নিজস্ব ডিজিটাল সম্পদ। কেউ ব্লগের কোন পোস্ট কিংবা আংশিক অংশ ব্লগের কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া কপি পেস্ট করে অন্য কোথাও প্রকাশ করলে ব্লগ কর্তৃপক্ষ ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা করার অধিকার রাখে। এবং অবশ্যই কপিরাইট ক্লাইম করে যে মাধ্যমে এই ব্লগের পোস্ট প্রকাশ করা হবে সেখানেও অভিযোগ সাবমিট করা হবে।

ধন্যবাদ, ব্লগ কর্তৃপক্ষ।

Author

Leave a Comment

Your email address will not be published.

You cannot copy content of this page