স্বপ্নের ব্যাখ্যা, স্বপ্নে কি দেখলে কি হয়?

স্বপ্নের ব্যাখ্যা

স্বপ্ন দেখা একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। প্রত্যেক মানুষই ঘুমন্ত অবস্থায় কম বেশি স্বপ্ন দেখে থাকে, এমন কেউ পাওয়া যাবেনা স্বপ্ন দেখেনা। স্বপ্ন নিয়ে হয়েছে অনেক বিজ্ঞানিক গবেষণা, মুভি, লেখা হয়েছে বিশ্লেষণধর্মী বই। ইসলাম ধর্মে স্বপ্ন নিয়ে সবচেয়ে বড় ও বহুল প্রচলিত ঘটনা হল হযরত ইসমাইল (আ.) এর কুরবানীর ঘটনা। এছাড়াও ছোট বড় আরো অনেক স্বপ্নের ঘটনা রয়েছে। আজকে আমরা সেদিক দিয়ে যাবোনা, বরং স্বপ্নে কি দেখলে কি হয়, ইসলামের দৃষ্টিতে স্বপ্নের ব্যাখ্যা কি হয় তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

স্বপ্নে বৃষ্টি দেখলে

এই সেকশনে পাবেন স্বপ্নে বৃষ্টি দেখলে কি হয়

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে বৃষ্টি দেখলে কি হয়
স্বপ্নে বৃষ্টি দেখতে পাওয়া আল্লাহর সাহায্য ও রহমতের আলামত
স্বপ্নে যদি দেখে আকাশ থেকে ঘি,মধু, তেল,অথবা দুধ ইত্যাদি বর্ষিত হচ্ছে তার অর্থ হবে
উক্ত এলাকাবাসীর প্রতি খাদ্য-সামগ্রী, মালে গনীমত এবং সার্বিক কল্যাণের দুয়ার খুলে দেয়া হবে, একই ভাবে সকল উওম জিনিসের বৃষ্টিপাতের ব্যাখ্যা কল্যাণধর্মী অর্থে নেয়া যেতে পারে
হযরত আবু বকর সিদ্দীক (রাঃ) বলেন আমি স্বপ্নে দেখি আকাশ থেকে ঘি মধুর বর্ষণ শুরু হয়েছে তার অর্থ হবে
আর লোকেরা ঝাঁপিয়ে পড়ে তা থেকে কেউ বেশী কেউ স্বপ্ল মাত্রায় নিয়ে যাচ্ছে, এর ব্যাখ্যা হযরত আবু বকর (রাঃ) বললেনঃ বাদল অর্থ ইসলাম আর ঘি মধুর অর্থ ইসলামের সৌন্দর্য,অনুরূপ প্রতিটি উওম জিনিসের বৃষ্টিপাত কল্যাণ আগমনের পরিচায়ক
স্বপ্নে যদি দেখতে পায় সে একদিন একরাত বৃষ্টিতে ভিজেছি তার অর্থ হবে
তিনি বললেন , উওম স্বপ্ন, যেন তুমি আল্লাহর রহমতে শরীর সিক্ত করার সুযোগ লাভে হয়েছ,এটা তোমার নিরাপওা ও অর্থ-সম্পদের প্রাচুর্য লাভের ইঙ্গিত।
এক ব্যক্তি স্বপ্ন দেখেছে বৃষ্টি যেন একেবারে তার মাথার উপর বর্ষিত হচ্ছে তার অর্থ হবে
দর্শনকারী লোকটি পাপাচারী তার পাপরাজি সীমা ছাড়িয়ে গেছে এবং পাপের আধিক্য তাকে বেষ্টন করে, নিয়েছে,(যার অর্থ তাদের উপর আমি মুষল্ধারে বৃষ্টি বর্ষন করেছিলাম।

স্বপ্নে বিদ্যুৎ দেখলে

এই সেকশনে স্বপ্নে বিদ্যুৎ দেখলে কি হয় তা দেওয়া হল।

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে বিদ্যুৎ দেখার অর্থ
বিদ্যুতের চমক দেখতে পাওয়া মুসাফির ব্যক্তির জন্য ভীতি আর মুকীমের জন্য লোভ-লালসার নিদর্শন
স্বপ্নে বিদ্যুৎ চমক দেখতে পায়ার অর্থ
একথাও বলা হয়েছে যে, বৃষ্টির বর্ষণ ব্যতীত কেবল বিদ্যুতের চমক দেখতে পাওয়া মুকীম-মুসাফির উভয়ের জন্য ভীতির আলামত।

বজ্রপাত দেখলে

স্বপ্নে বজ্রপাত দেখলে কি হয়? চলুন দেখে নেই স্বপ্নে বজ্রপাত দেখলে কি হয়।

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে বজ্রপাত দেখার অর্থ
স্বপ্নে বাতাসের সাতে বজ্রধ্বনি শুনতে পাওয়া শক্তিশালী-অত্যাচারী বাদশাহ বা শাসকের আলামত।
স্বপ্নে বজ্রপাত দেখলে কি হয়
স্বপ্নে বজ্রপাত দেখলে কি হয়

স্বপ্নে রংধনু দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে আকাশে সবুজ বর্ণের ধনু দেখার অর্থ
স্বপ্নে আকাশে সবুজ বর্ণের ধনু দেখতে পাওয়া দুর্ভিক্ষ হতে নিরাপওার আলামত
স্বপ্নে  হলুদ ধনু দেখার অর্থ
হলুদ রং-এর হলে রোগ-ব্যাধির চিহ্ন আর লোহিত বরণ দেখতে পাওয়া রক্তপাতের নিদর্শন
স্বপ্নে রংধনু  দেখার অর্থ
স্বপ্নে রংধনু দেখা দর্শনকারী ব্যক্তির বিয়ের ব্যবস্থা হওয়ার পূর্ব-লক্ষণ

স্বপ্নে বন্যা দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে বন্যা দেখার অর্থ
স্বপ্নে বন্যা দেখাতে পাওয়া শক্রর আক্রমণের নিদর্শন, আর পরনালা গড়িয়ে পানি প্রবাহিত হওয়া সবুজ শস্য শ্যামল এবং অধিক ফলনের লক্ষণ

স্বপ্নে মেঘ দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে যদি কেউ মেঘের মালিক হয় তার অর্থ
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে সে মেঘের মালিক হয়ে গেছে , মেঘ জমা করার কাজে  ব্যস্ত, মেঘমালার উপর দিয়ে সে হেঁটে বেড়ায় অথবা তাতে সে আরোহণরত, তাহলে উপরে উল্লিখিত বিষয়সমূহের মধ্য হতে গুরুত্বপূর্ণ ও মূল্যবান বস্তুর সে মালিক হবে
স্বপ্নে দেখেছে সে মেঘখগু খায় এবং তার সামনে আর বহু মেঘমালা ছড়িয়ে তার অর্থ
এর ব্যাখ্যায় তিনি বললেনঃ সে ব্যক্তি উওম স্বপ্ন দেখেছে , সে ইলমে দ্বীন হাসিল করবে এবং তার খ্যাতি দেশময় ছড়িয়ে পড়বে, সুনাম ও সম্মানের এত উচ্চ মর্যাদায় সে পৌঁছে যাবে, যেখানে উপনীত হওয়া অন্য কারো পক্ষে সম্ভব হবে না।
এক লোক স্বপ্নে দেখল মেঘমালা যেন তার উপর ছায়া বিস্তার করে আছে তার অর্থ
এর ব্যাখ্যা দিয়ে তিনি বললেন দর্শনকারী অসুস্থ হলে রোগমুক্ত হবে ,ঋণগ্রস্ত হলে আল্লাহ তালা ঋণ শোধ করার ব্যবস্থা করে দেবেন, দরিদ্র হলে আল্লাহ তার অভাব -অনটন দূর করে ধন-সম্পদ দেবেন আর নির্যাতিত হলে আল্লাহর পক্ষ থেকে তার প্রতি সাহায্য নেমে আসবে
মেঘমালা স্বপ্নে দেখল পুনরায় জিজ্ঞাসা করা হল তার অর্থ
কেননা , বাদল আল্লাহ পাকের রহমতস্বরূপ এবং তাতে যা কিছু আছে সবই রহমত হিসাবে গণ্য, উপরন্তু বহু বার এই মেঘমালা রসূলূল্লাহ (দঃ)-কে যুদ্ধক্ষেত্রে আপন ছায়ায় বেষ্টন করে রেখেছিল

স্বপ্নে কূপ দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে কূপ দেখার অর্থ
স্বপ্নেযোগে কূপ দেখা মূলধনপ্রাপ্তি ও আয়-উপার্জনের নিদর্শন
স্বপ্নে কেউ কূপ খনন করছে দেখতে পেল তার অর্থ
এর অর্থ  উপর্জনের ক্ষেত্রে সে যথাসাধ্য চেষ্টা করবে, কিন্তু আশানুরূপ ফল পাবে না, তার প্রাপ্ত রুজির পরিমাণ হবে সামান্য
স্বপ্নে কোন ব্যক্তি আপন ঘরে কুয়া খনন করেছে তাতে পর্যাপ্ত পানি জমা হয়ে ফুলে উঠেছে তার অর্থ
এটা তার অর্থ-সম্পদ বৃদ্ধি পাওয়া এবং বিনা পরিশ্রমে আল্লাহর পক্ষ হতে প্রচুর পরিমাণে পূত-পবিত্র মাল পাওয়ার নিদর্শন
স্বপ্নে দেখল-তার ঘর ও কুয়া থেকে পানি বের হয়ে বাইরে গরিয়ে যেতে শুরু করেছে তার অর্থ
এর ব্যাখ্যা হল তার মাল-সম্পদের সিংহ ভাগ শেষ হয়ে সামান্য কিছু বাকী থাকবে
স্বপ্নে দেখে র্ঝণা বা খালবিলের পানি প্রবাহিত হয়ে ক্ষেত-খামার ভাসিয়ে চলছে তার অর্থ
আল্লাহর রাস্তায় সে অকাতরে সম্পদ ব্যয়ে নিয়োজিত আছে, কিন্তু যদি দেখতে পায়, ঝর্ণার পানি সেচ করে সে ভাসিয়ে দিচ্ছে, এমন কাজে সে অর্থ ব্যয়ে এগিয়ে যাবে , যাতে তার লাভ ক্ষতি উপকার -অপকার কোনটাই নিহিত নেই
স্বপ্নে দেখে-ঝর্ণা থেখে পানি তুলে সে লোকদের বিলিয়ে দেয় অথবা পান করে তার অর্থ
সে সচ্ছল জীবনের অধিকারী হবে, বৃহওর জনগোষ্ঠীর ব্যয়ভার তার উপর ন্যস্ত থাকবে,অর্থাৎ ইয়াতীম অসহায় লোকদের ভরণ-পোষণে সে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে
স্বপ্নে দেখে ঝর্ণার পানি বয়ে গাছের গোড়া সিক্ত করছে তার অর্থ
ইয়াতীমের ভরন-পোষণে সে আপন অর্থ ব্যয় করবে, যদি দেখে পানি তুলে সে লোকদের পান করায়, এর অর্থ হবে হজ্জযাত্রীদের সাহায্য-সহযোগিতায় সে কার্যকর ভূমিকা পালন করবে
স্বপ্নে যদি দেখে পানি তুলছে কিন্ত পানিতে নোংরা আবর্জনা ও গলিত জিনিস বিদ্যমান এর অর্থ
আপন মালের  সাথে সে অবৈধ মালের মিশ্রণে তৎপর রয়েছে
স্বপ্নে দেখল -তার বালতির রশি ছিঁড়ে গেছে তার অর্থ
লোকদের প্রতি তার কৃত উপকার-অনুগ্রহের ধারা ছিন্ন হয়ে যাবে
স্বপ্নে দেখল সে কুয়ায় প্রবেশ করেছে অথবা পতিত হয়েছে তার অর্থ
এর ব্যাখ্যা হবে পরিণামে সে সফল ও বিজয়ী হবে-হযরত ইউসুফ (আঃ)-এর বেলায় যেমনটি হয়েছে

স্বপ্নে নদী দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে দেখল নদীতে নেমে সে এর অর্থ
স্বপ্নে যে পরিমাণ ভীত-চিন্তাগ্রস্ত হয়েছে , বাস্তব জীবনেও সে তদ্রূপ ভয় -ভীতি ও চিন্তা-ভাবনার শিকার হবে
স্বপ্নে দেখল নদীর পানি নোংরা ময়লাযুক্ত হয়েছে তার অর্থ
তাহলে সে মঙ্গলের অধিকারী হবে এবং শান্তি ও নিরাপদে তার জীবন কাটবে
স্বপ্নে দেখল নদীর পানি নোংরা  দেখে পানিই সে পান করল তার অর্থ
তাহলে সে পানকৃত পানির সমপরিমাণ রোগ-ব্যাধি, দুঃখ-যাতনা, আপদ-বিপদের কবলে পতিত হবে
স্বপ্নে দেখতে পায় সে ব্যক্তি নদীর পানি দ্বারা পরিতৃপ্ত হয়েছে তার অর্থ
সে ছোট-বড় নদীর ব্যাপ্তি ও বিস্তৃতি অনুপাতে কারো পক্ষ থেখে সম্পদের অধিকারী হবে
স্বপ্নে দেখল নদী কিংবা সাগরে গোসল করছে তার অর্থ
অথচ তার মনে ভয়-ভীতি, অপমান-লাঞ্ছনা, বিচলিত ভাব ইত্যাদির কোনটাই অনুভব হয়নি
স্বপ্নে ঝর্ণায় (খালে) গোসল করছে তার অর্থ
তার দুঃখ-কষ্ট ও মর্মপীড়া দূরীভূত হবে, ব্যাধিগ্রস্ত হলে রোগমুক্তি ঘটবে, মনে প্রফুল্লাতা আসবে, ঋণগ্রস্ত হলে আল্লাহ তাকে দায়মুক্ত করবেন, কোন প্রকার ভয়ের সম্মুখীন হলে আল্লাহ তাকে নির্ভয় করে দেবেন
স্বপ্নে দেখল নদী পার হয়েছে তার অর্থ
তাহলে ব্যাখ্যা হবে তার ভয়-ভীতি, চিন্তা-কষ্ট দূর হয়ে যাবে
স্বপ্নে দেখে সেখানে যদি কাদামাটি থাকে তার অর্থ
দীর্ঘ দিন উঠাবসা, চলাফেরা ছিল ব্যবহারিক জীবনে সখ্যতা ছিল, এমন লোকের সাথে সে সম্পর্ক ছিন্ন করবে, এর পর হয় অপর কারো সাহচর্যে গমন করবে অথবা নিঃসঙ্গ আবস্থায় থাকবে

স্বপ্নে সাগর দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে সাগর দেখার অর্থ
স্বপ্নে সাগর দেখতে পাওয়া ফলত বৃহওর সাম্রাজ্যের পূর্ণ লক্ষণ
স্বপ্নে দেখে সে সাগরের পানি পান করছে তার অর্থ
তাহলে ব্যাখ্যা হবে যে পারিমাণ পানি সে পান করেছে তার সমপরিমাণ রাজত্ব বা ক্ষমতার অধিকারী হবে এবং পার্থিব জীবনে  সে প্রাচুর্যময় অবস্থায় দিন কাটাবে
স্বপ্নে দেখল সাগরে  ময়লা-আবর্জনাপূর্ণ অন্ধকারাচ্ছন্ন কিংবা তরঙ্গময় ছিল তার অর্থ
তাহলে সে পরিমাণ দুঃখ-কষ্ট ও বিপদ-বিপর্যয়ের সম্মুখীন হবে
স্বপ্নে দেখল সাগরের পানিতে সে ডুবে গেছে তার অর্থ
তাহলে পানি স্বচ্ছ-পরিস্কার হলে এটা তার রাষ্ট্রীয় কাজে বিভোর থাকার নিদর্শন, পক্ষান্তরে পানি অপরিচ্ছন্ন হলে সে ব্যক্তি প্রাণঘাতী বিপর্যয়ের শিকার হবে
স্বপ্নে যদি কেউ দেখে সাগরবক্ষে চলাফেরা করছে তার অর্থ
পার্থিব জীবনে সে রাজা-বাদশাহ এবং দুনিয়াদার লোকদের উপর প্রবল ও বিজয়ী থাকবে, তদুপরি সে নিজ বাসস্থান পরিবর্তন করবে, আল্লাহই ভাল জানেন

স্বপ্নে নৌকা দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বনে নৌকা দেখার অর্থ
স্বপ্নে নৌকা পাওয়া সাধারণত মুক্তির আলামত
স্বপ্নে দেখল-সাগরবক্ষে সে নৌকায় বসা তার অর্থ
এর তা বীর হবে উক্ত নৌকার ছোট-বড় ও প্রশস্ততা অনুপাতে সে রাষ্ট্রী কাজে অংশগ্রহণ করবে কিন্তু পরবর্তী পর্যায়ে তা থেকে সে মুক্তি পায়ে যাবে
স্বপ্নে যদি দেখে সে নোকায় বসা রয়েছে আর তাতে পানি ঢুকে পড়েছে তার অর্থ
এর তা বীর হবে সে ব্যক্তি রোগ-ব্যাধি অথবা দুশ্চিন্তার শিকার হবে, কিংবা কারাগারে আটক হবে, কিন্তু এক পর্যায় এই সমস্ত বিপদ থেকে সে মুক্তি পাবে
স্বপ্নে দেখল নৌকা থেকে বের হয়েছে তার অর্থ
এর অর্থ অচিরেই সে মুক্তি পাবে
স্বপ্নে যদি নৌকা শুকনায় আছে দেখে তার অর্থ
সে দুশ্চিন্তা ও বিপর্যয়ের সম্মুখীন হবে,কিন্তু অনতিবিলম্বে  তা থেকে  উদ্ধার পেয়ে যাবে
স্বপ্নে দেখল-নৌকাটি কেবলা পানে বয়ে চলছে তার অর্থ হবে
অতিশীঘ্র সে বিপদ-মুসীবতের ছোবল থেকে পরিত্রাণ পেয়ে যাবে

স্বপ্নে মাটি দেখলে কি হয়

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে মাটি ও কাদা দেখতে পাওয়া অর্থ
স্বপ্নেযোগে এদুটি দেখতে পাওয়া মূলত ভয়-ভীতি ও দুশ্চিন্তার আলামত, তাই যে পরিমাণ মাটি-কাদা দেখতে পাবে, তার সমপরিমাণ সে ভয়-ভীতি ও দুশ্চিন্তার শিকার হবে
স্বপ্নে দেখল-তার গায়ে গরম পানি লেগেছে তার অর্থ হবে
রাজা-বাদশাহ তথা শাসকবর্গের পক্ষ থেকে সে দুঃখ-যাতনা নির্যাতন-নিগ্রহের শিকার হবে

স্বপ্নে ইট দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে ইট দেখতে পায়ার অর্থ
একন মাটি বলা হয় না স্বপ্নে এ জাতীয় শুকনা ইট দেখতে পাওয়া জমাকৃত মালের নিদর্শন
স্বপ্নে যদি ইটের কিছু অংশ লাভ করে তার অর্থ
সে লোক সঞ্চিত ধনের অধিকারী হবে
স্বপ্নে দেখল  দেয়ালের ইট খসে পড়েছে তার অর্থ
নারী কিংবা পুরুষ তার যে কোন আন্তীয় হারিয়ে যাবে

স্বপ্নে হাতি দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে যদি কেউ দেখে হাতির পিঠে আরোহণ  করেছে তার অর্থ হবে
হাতির ব্যাখ্যা সাধারণত প্রতাপশালী, বিজয়ী ও অনারব ব্যক্তি দ্বারা করা হয়, কেউ যদি দেখতে পায় সে হাতির পিঠে আরোহণ করেছে, হাতির মালিক হয়েছে,তাকে ঘেরাও করে রেখেছে অথবা ক্ষেত- খামার ব্যতীত অন্য কাজে হস্তী চালনা-পরিচালনা করেছে, তাহলে ব্যাখ্যা হবে সে প্রভাব-প্রতিপওি ও শান-শওকতের অধিকারী হবে কিংবা অনারব রাজা-বাদশাহর দরবারে উচ্চ মর্যাদা লাভ করবে।
হাতির গোশত ভক্ষণ করছে মর্মে কেউ স্বপ্ন দেখলে অর্থ হবে
আহারকৃত গোশতের পরিমাণ অনুপাতে বাদশাহর দরবার থেকে সে ধন-সম্পদ লাভ করবে।
স্বপ্নে যদি দেখে হাতির লোম, চামড়া, হাড়, হস্তী-দেহের অংশ গ্রহণ করেছে তার অর্থ হবে
অর্থাৎ, শাহী দরবার থেকে সে অর্থ-সম্পদ লাভ করবে।
স্বপ্নে যদি দেখে যুদ্ধের ময়দানে হাতির পিঠে সওয়ার হয়েছে তার অর্থ হবে
হাতিওয়ালা প্রতিপক্ষের উপর জয়লাভ করবে।

স্বপ্নে সিংহ দেখলে

এই সেকশনে পাবেন স্বপ্নে সিংহ দেখলে কি হয়

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে যদি দেখে সিংহের সাথে সে লড়াই করছে তার অর্থ হবে
সে কোন অজেয় শক্রর সাথে সংঘর্ষে লিপ্ত রয়েছে।
স্বপ্নে যদি সিংহের পিঠে সওয়ার হয়ে আছে তাকে যেদিকে ইচ্ছা চালনা করছে তার অর্থ হবে
সে ব্যক্তি সীমাহীন প্রভুত্বের মালিক হবে, এমনকি অজেয় শক্রকে পর্যন্ত বশ্যতা স্বীকারে বাধ্য করবে।
স্বপ্নে কেউ যদি সিংহের সামনা-সামনি হয়েছে কিন্তু তার সাথে সংঘর্ষ  কিংবা অন্য কোন ধরনের আচরণ করা থেকে বিরত তার অর্থ হবে
বাদশাহ কিংবা অন্য কোন প্রভাবশালী ব্যক্তি দ্বারা সে ভীত-বিচলিত হবে, কিন্তু এতে তার কোন ক্ষতি হবে না।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে তার বাড়িতে সিংহ ঢুকেছে তার সাথে আনাগোনা আসা-যাওয়া করেছে সিংহ তার সাথে উঠাবসা করছে তার অর্থ হবে
সেই ব্যক্তি, যার বৈশিষ্ট্য এইমাত্র আলোচিত হল,বাদশাহ কিংবা অন্য কোন প্রভাবশালী ব্যক্তি দ্বারা সে ভীত-বিচলিত হবে, কিন্তু এতে তার কোন ক্ষতি হবে না।
স্বপ্নে যদি সিংহের গোশত আহার করছে তার অর্থ হবে
বাদশাহ অথবা কোন প্রভাবশালী লোকের পক্ষ থেকে সম্পদ লাভ করবে।
স্বপ্নে যদি দেখে চামড়া লাভ করেছে তার অর্থ হবে
সে কোন বিওবান ধনী লোকের ত্যাজ্য সম্পওির মালিক হবে।
স্বপ্নে যদি সিংহের মাথার গোশত কিংবা সিংহের মালিক হয়েছে তার অর্থ হবে
নিজের কাছে সিংহীকে স্থান দিয়েছে, তাহলে এটা বিশাল সাম্রাজ্য লাভের পূর্ব লক্ষণ।
স্বপ্নে যদি সিংহীর দুধ পান করে তার অর্থ হবে
সে ব্যক্তি রিযিক ও কল্যাণের অধিকারী এবং শক্রর বিজয়ী হবে।

স্বপ্নে বাঘ দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে যদি দেখে বাঘের সাথে লড়াই করছে তার অর্থ হবে
আলোচ্য ধরনের লোকের সাথে সে ঝগড়ায় লিপ্ত রয়েছে।
স্বপ্নে যদি দেকে বাঘের পিঠে আরোহণ করছে তার অর্ত হবে
দর্শনকারী মান-মর্যাদা ইযযত-সম্মান ও বুযুর্গী লাভে ধন্য হবে এবং শক্তিমান পরম শক্রর উপর জয়লাভ করবে।
স্বপ্নে যদি বাঘিনীর দুধ পান করে তার অর্থ হবে
অথবা দুধ তার অধিকারে এসেছে মর্মে দেখতে পায়, তাহলে সে দুঃখ-যাতনা ও কঠিন বিপদের শিকার হবে।
স্বপ্নে যদি বাঘের গোশত চামড়া দেকার অর্থ হবে
বাঘের , গোশত, চামড়া, তার সকল অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ দেখতে পাওয়া শক্রর হাত থেকে ছিনিয়ে আনা সম্পদের অর্থ প্রকাশ করে।
স্বপ্নে বাঘ দেখলে কি হয়
স্বপ্নে বাঘ দেখলে কি হয়

ওয়াবর দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে ওয়াবর দেখার অর্থ হবে
স্বপ্নে ওয়াবর (ফেউ জাতীয় প্রাণী বিশেষ)  দেখতে পাওয়ার ব্যাখ্যা বাঘের ন্যায় একই ধরনের, যা এইমাত্র বর্ণিত হল।

চিতা বাঘ দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে চিতাবাঘ এর ব্যাখ্যা করা হলো
লোকের মর্যাদা বুঝে না, সম্মান দিতে জানে না, এহেন মূর্খ দুশমন দ্বারা এর ব্যাখ্যা করা হয়, কোন সময় এর ব্যাখ্যা চোর দ্বারাও করা হয়, আর চিতাবাঘের ব্যাখ্যা সাধারণত হিংস্র প্রাণীর ন্যায়, তবে স্বপ্নে চিতাবাঘের দুঘ পানকারী ব্যক্তি অতিশীঘ্র কোল মঙ্গল বা কল্যাণপ্রাপ্ত হবে।

গোরখোদ দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে গোরখোদ এর ব্যাখ্যা করা হলো
কুৎসিত ও মন্দ নারী দ্বারা এর ব্যাখ্যা করা হয়, স্বপ্নে এ প্রাণী দেখতে পেলে উপরে বর্ণিত ব্যাখ্যার অনুরূপ এর ব্যাখ্যা মনে করতে হবে, কিন্তু এর দুধ পান করেছে মর্মে কেউ যদি স্বপ্নে দেখে তাহলে ব্যাখ্যা হবে, নিজের স্ত্রী তার সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করবে, স্বপ্নে  গোরখোদ দেখতে পাওয়া লাঞ্ছিত অভিশপ্ত দুশমন অর্থবোধক।

নেকড়ে বাঘ দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে নেকড়ে বাঘ এর ব্যাখ্যা করা হলো
এর ব্যাখ্যা যালিম, অত্যাচারী, দুশমন, মিথ্যাচারী, ধোকাবাজ ও সাহসী চোর অর্থ করা হয়, আবার কখনো ঝগড়াটে দুশমন অর্থেও এর ব্যাখ্যা করা হয়, দর্শনকারী যার সাথে কলহে লিপ্ত আছে, এর তফসিলী ব্যাখ্যা ইতোপূর্বে বর্ণিত ব্যাখ্যার অনুরূপ, কিন্তু বাঘিনীর দুধ পান করেছে মর্মে কেউ স্বপ্ন দেখলে ব্যাখ্যা হবে-অচিরেই সে কল্যাণের অধিকারী হবে, অভাব-অনটনের শিকার হলে আল্লাহ তাকে প্রাচুর্যের মুখ দেখাবেন আর গরীব হয়ে থাকলে বিওবানে রূপান্তরিত হবে

পাখি দেখলে

স্বপ্ন
অর্থ
স্বপ্নে ইগল পাখি দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা শক্তিধর যুদ্ধবাজ ও অত্যাচারী রাষ্ট্রনায়ক অর্থে করা হয়। উল্লেখ্য, ঈগল, বাজ, শাহীন ইত্যাদি যাবতীয় হিংস্র ও শিকারী পাখী স্বপ্নে দেখার ব্যাখ্যা শকুন পর্যায়ে বর্ণিত ব্যাখ্যা অনুরূপ হবে ।
স্বপ্নে চিল দেখলে কি হয়
স্বপ্নে চিল দেখার ব্যাখ্যা বিনয়ী ক্ষমতাবান বাদশাহ বা রাষ্ট্রনায়ক অর্থে করা হয়। তবে ব্যক্তিত্ব হিসাবে তিনি বড় একটা উল্লেখযোগ্য নন ।
স্বপ্নে পেঁচা দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা- দুর্বল চোর অর্থে করা হয়, যে কারো সাথী হয় না, সাহায্য করে না ।
স্বপ্নে কাক দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা- মিথ্যাবাদী ফাসেক  ব্যক্তি, দ্বীন- ঈমান বলতে যার কিছুই নেই। বনকাক ও কোকিল দেখতে পাওয়ার ব্যাখ্যাও একই ধরনের হবে । ইমাম মুহাম্মদ ইবনে সীরীন (রহঃ) বলেছেন, দিবা স্বপ্নে কেউ যদি বনকাক দেখতে পায়, তাহলে এটা তার কষ্ঠিন রোগে আক্রান্ত হওয়ার পূর্ব- লক্ষণ
স্বপ্নে হুদহুদ পাখি দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা এমন ব্যক্তি অর্থে করা হয়, যে শাহী খেদমতে নিয়োজিত, বহু তথ্য সম্পর্কে অবগত এবং বাদশাহ তথা রাষ্ট্রনায়কের দরবারে এমন সব তথ্য সরবরাহ করে, যা দ্বারা দেশ ও জাতির প্রভূত কল্যাণ সাধিত হয়। অপর বর্ণনায় আছে- স্বপ্নে হুদহুদ পাখী দেখতে পাওয়া দ্বারা এমন লোক বুঝানো হয় অংক ও হিসাব বিষয়ে যে পারদর্শী, প্রভাবশালী ও দূরদশী, তদুপরি পরিস্থিতির দাবী অনুপাতে যে কোন বিষয় নিয়ন্ত্রণে দক্ষ ও পারঙ্গম।
স্বপ্নে সারস পাখি দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা  গরীব-মিসকীন, সহায়-সম্বলহীন লোক অর্থে করা হয় ।
স্বপ্নে মাদী উটপাখী দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা গ্রাম্য মুসাফির স্ত্রীলোক দ্বারা করা হয়
স্বপ্নে নর উটপাখি দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা করা হয় অবিবাহিত বিদেশী পুরুষ অর্থে
স্বপ্নে মোরগ দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা সাধারণত গোলাম অথবা অনারব লোক অর্থে করা হয় কারো কারো মতে স্বপ্নে মোরগ দেখলে পাওয়ার ব্যাখ্যা- মুয়াযযিন কিংবা ঘোষণাকারী অর্থবোধক, লোকেরা যার আওয়াজ সব সময় শুনতে পায় ।
স্বপ্নে মুরগী দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা বরকতময় নারী অর্থে করা হয়। স্বপ্নে যদি অধিক পরিমাণে মুরগী দেখতে পায় তাহলে ব্যাখ্যা হবে -বিয়ে-শাদী, আনন্দ-উৎসব ও পালা- পার্বণে আগত বাঁদী- দাসী ও স্ত্রীলোকের ইঙ্গিতবাহী ।
স্বপ্নে মাদি তিতির পাখি দেখলে কি হয়
আকীদা -বিশ্বাস ওয়াদা ভঙ্গকারিণী নারী অর্থে এর ব্যাখ্যা করা হয়। যার মধ্যে কোনরূপ কল্যাণ নেই
স্বপ্নে জংলী কবুতর দেখলে কি হয়
আনন্দ- স্ফূর্তি ও  খেলাধুলা পসন্দ করে এমন নারী
স্বপ্নে তোতা পাখি দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা ইয়াতীম পিতৃহীন বালক অথবা বালিকা অর্থে করা হয় ।
স্বপ্নে ময়ূর দেখলে কি হয়
স্বপ্নে দেখা ময়ূরটি নর হলে সে লোকের অর্থে- সম্পদ, রূপ- লাবণ্য অথবা তার ভক্ত- অনুসারী ইত্যাদি অর্থে ব্যাখ্যা করা বিধেয়
স্বপ্নে ময়ূরী দেখলে কি হয়
স্বপ্নে ময়ূরী দেখতে পাওয়া অনারব রূপবতী নারী অর্থবোধক। পক্ষান্তরে কুশ্রী ময়ূরী দেখতে পাওয়া সুশ্রী সুন্দরী নারীর অর্থ প্রকাশ করে বটে, কিন্তু সে হবে আকর্ষণ ও আস্থাহীন মহিলা ।
স্বপ্নে কপোতী দেখলে কি হয়
এর অর্থ নারী । অধিকাংশ ক্ষেত্রে স্ত্রী অর্থ বুঝায়, আবার কোন সময় নিজের মেয়ে অর্থ প্রকাশ করে। স্বপ্ন দেখা কবুতরের সংখ্যা পরিমাণে অধিক হলে এর ব্যাখ্যা সম্ভান অর্থে করা হয়
স্বপ্নে পুরুষ মোমাছি দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা বুদ্ধিমান ও চতুর বালক দ্বারা করা হয়
স্বপ্নে ঘুঘু পাখি দেখলে কি হয়
স্বপ্নে ঘুঘু দেখা দ্বীনদারী ও লজ্জা বিবর্জিত নারী অর্থবোধক। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, স্বপ্নে দেখা সকল প্রকার  পাখির  মালিক হয়েছে অথবা পাখী ভক্ষণ করেছে, তাহলে অন্যান্য পাখির বেলায় অনুসৃত নিয়ম অনুযায়ী ব্যাখ্যা নারী অর্থে করা হবে । কেউ যদি স্বপ্নে দেখে শিকার করে অথবা ফাঁদ পেতে সে ঘুঘু পাখির ডানা, পালক বা ডিম লাভ করেছে , তাহলে ব্যাখ্যা হবে এটা তার ধোকা ও চক্রান্ত জাল, যা সে নারীর জন্য বুনেছিল। কেউ যদি তীর বা পাথরের আঘাতে ঘুঘু মেরেছে মর্মে স্বপ্নে দেখে তাহলে ব্যাখ্যা হবে- সে ব্যক্তি কোন নারীর প্রতি মিথ্যা অপবাদ রটনায় লিপ্ত আছে
স্বপ্নে বুলবুলি দেকলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা বরকতময় ও ভাগ্যবান বালক অর্থে করা হয় ।
স্বপ্নে শ্যামা পাখি দেখলে কি হয়
এর ব্যাখ্যা অল্প বয়স্ক বালক অর্থে করা হয়
স্বপ্নে চড়ুই পাখি দেখলে কি হয়
নর চড়ুই দেখার অর্থ অস্বাভাবিক স্থুলকায় ব্যক্তি । আর স্ত্রী চড়ুই দেখতে পাওয়ার অর্থ এমন স্ত্রীলোক যার কপাল মন্দ । শিকার করা চড়ুই পাখির সংখ্যা যদি পরিমাণে অধিক দেখতে পায়, তাহলে এটা ধন- সম্পদ ও গনীমতের মালপ্রাপ্তির নিদর্শন । একইভাবে উপরে বর্ণিত পক্ষীকুলের মধ্য হতে  কোন শ্রেণীর পাখি যদি শিকারের মাধ্যমে অর্জন করেছে মর্মে স্বপ্ন দেখে- আর সেগুলি সংখ্যায়ও অধিক হয়, তাহলে সম্পদ ও গনীমতের মালপ্রাপ্তির ইঙ্গিতরূপে ধরে নিতে হবে । স্বপ্নে যদি কেউ চড়ুই পাখির আওয়াজ শুনতে পায়, তাহলে এটা সুসংবাদের আগমনী বার্তারূপে গণ্য হবে ।
স্বপ্নে আবাবিল পাখি দেখলে কি হয়
এ পাখি স্বপ্নে দেখার ব্যাখ্যা  ইবাদতগুয়ার বান্দা, যিনি আল্লাহর দেয়া বরকতের অধিকারী এবং সৎ ও কল্যাণধর্মী কাজে সর্বাধিক তৎপর ।
স্বপ্নে ফিঙ্গে পাখি দেখলে কি হয়
স্বপ্নে ফিঙ্গে দেখতে পাওয়ার ব্যাখ্যা উটের ন্যায় সর্বদা সফরে জীবন কাটায় এমন লোক দ্বারা করা হয় ।
স্বপ্নে লটুরা পাখি দেখলে কি হয়
এজাতীয় পাখি স্বপ্নে দেখার ব্যাখ্যা হল- দর্শনকারী আল্লাহর পক্ষ থেকে হেদায়তপ্রাপ্ত হবে । কথিত আছে, এটি হযরত আদম (আঃ)- এর পথ প্রদর্শক ছিল ।
স্বপ্নে জলচর পাখি দেখলে কি হয়
স্বপ্নে জলচর পাখি পানির মধ্যে দেখতে পাওয়া বাদশাহর লোক- লশকর, সাহায্যকারী ও সমর্থক দলের অর্থ প্রকাশ করে । কিন্তু স্থলভাগে দেখতে পাওয়া কল্যাণের প্রতীক ও ফল – ফসলে প্রাচুর্যের ইঙ্গিত । দুঃখ – বেদনা ও বালা – মুসীবতের আলামত হওয়ার দরুন নীল বর্ণের পাখি দর্শনে কোন কল্যাণ নেই । প্রকার ও প্রজাতি জানা নেই স্বপ্নে এমন পাখি দেখতে পাওয়া ফেরেশতা অর্থবোধক । এজাতীয় পাখি দেখার ব্যাখ্যা ইতোপূর্বে  ফেরেশতা অধ্যায়ে বর্ণিত ব্যাখ্যা অনুরূপ । বিস্তারিত জানার জন্য সেখানে দেখা যেতে পারে
স্বপ্নে ডিম দেখলে কি হয়
স্বপ্নে দেখা ডিম যদি অজ্ঞাত – অপরিচিত হয়, তাহলে অর্থ হবে সুশ্রী, লাবণ্যময়ী নারী । কিন্তু এর জন্য শর্ত হল- দর্শনকারী ডিমের মালিক হওয়া  কিংবা সেটি তার নিকট আসা অনিবার্য । কেউ যদি ভুনা করা, সিদ্ধ অথবা রান্না করা ডিম খেয়েছে মর্মে দেখতে পায়, তাহলে এটা তার ধন – দৌলত ও কল্যাণময় উওম রিযিকপ্রাপ্তির আলামত । পক্ষান্তরে কাঁচা ডিম খেয়েছে মর্মে স্বপ্ন দেখার ব্যাখ্যা অবৈধ ও হারাম মাল দ্বারা করা হয় । কেউ যদি ডিমের খোসা কিংবা কুসুম ব্যতীত কেবল সাদা অংশটুকু খেয়েছে দেখতে পায়, তাহলে ব্যাখ্যা হবে- সে কোন মৃত কিংবা নিহত ব্যক্তির মাল আত্নসাৎ করবে । এমনকি সম্ভবত সে ব্যক্তি কাফন চোরও হতে পারে ।

দুধ ও পানীয় দ্রব্য

স্বপ্নে দুধ পান করে
অর্থ ও ইসলামিক ব্যাখ্যা
কেউ যদি স্বপ্নে দুধ দেখা হল
ইসলামের নৈতিক চরিত্র এবং নবী করীম (দঃ)-এর সুন্নত।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে অচেনা ধরনের দুধ পান করেছে বা দুধ তার হস্তগত হয়েছে
তাহলে অর্থ হবে সে ব্যক্তি কল্যাণের অধিকারী হবে এবং তার দ্বীনী অবস্থা ভাল থাকবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দুধের জাত ও মাঠা, মাখন ইত্যাদি জাত সম্পর্কে দেখে, তার ব্যাখ্যা হচ্ছে
সে হালাল সম্পদ পাবে এবং উত্তম রুজি তার ভাগ্যে নসীব হবে, যার দ্বারা তার উপকার সাধিত হবে।
কেউ যদি স্বপ্নে পনীর দেখে সাধারণত তার অর্থ
সম্পদ, কল্যাণ এবং দর্শনকারীর সুখ-সমৃদ্ধির আলামত।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে গরু মহিষ এবং উটনীর দুধ
এ সমস্ত দুধের সবগুলিই উওম, কিন্তু বকরী ও ভেড়ীর দুধ গাভীর দুধের তুলনায় নিম্নমানের। বন্য উটনীর দুধ দ্বীনী যােগ্যতা ও ধর্মীয় উন্নতির অর্থবােধক।
কেউ যদি খচ্চরের দুধ পান করতে দেখে
তাহলে দর্শনকারী ভয়-ভীতি এবং দুঃখ-বিড়ম্বনার শিকার হবে। গৃহপালিত গর্দভীর দুধ পানকারী কঠিন রােগে আক্রান্ত হবে, অবশ্য পরবর্তীতে সুস্থ হয়ে উঠবে।
কেউ যদি হালাল জাতীর সকল বন্য পশ্ত  এবং হরিণীর দুধ করতে দেখে
তার ইসলামিক ব্যাখ্যা হল, যােগ্যতা এবং বৈধ আয়-উপার্জনের ইঙ্গিতবাহী। ঘােড়ীর দুধ পানকারী সুনাম-সুখ্যাতির অধিকারী হবে।
কেউ যদি বাঘিনীর দুধ পান করতে
তার মানে শত্রুর উপর জয়ী হওয়ার নিদর্শন।

কুকুরীর দুধ পানকারী শত্রু ভয়ে ভীত থাকবে আর অচিরেই সে ক্ষতির সম্মুখীন হবে।

কেউ যদি স্বপ্নে দেখে চিতা বাঘিনীর দুধের অর্থ হলো
সে ভীতির শিকার হবে এবং তার শত্রু সৃষ্টি হবে।
কুকুরীর দুধ পান করা দেখা মানে
শত্রু ভয়ে ভীত থাকবে আর অচিরেই সে ক্ষতির সম্মুখীন হবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে শিয়ালনীর দুধ পান করে তার অর্থ
আনন্দ-উল্লাস এবং অর্থ-সম্পদ প্রাপ্তির নিদর্শন। বনরুই, পাণ্ডা ইত্যাদি প্রাণীর দুধ পান করা রােগ-ব্যাধি ও কলহ-বিবাদের আলামত।
কেউ যদি স্বপ্নে শূকরীর দুধ পান করতে দেখে
পানকারীর মস্তিষ্কবিকৃতি দেখা দিবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে স্তন থেকে দুধ নিজে করুক কিংবা পান করানো হোক তার অর্থ
উভয় অবস্থায় পানকারী বন্দী অথবা আর্থিক দৈন্যদশায় পতিত হবে। কেননা, দুই বৎসর বয়সের পরে দুধ পান করা নিষেধ।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে তার স্তন থেকে দুধ গড়িয়ে পড়ছে তার অর্থ
মাল-দৌলত এবং আয়-উপার্জন তার প্রতি ছুটে আসবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে কিন্ত দুধ গড়িয়ে পড়ার পরিবর্তে যদি পান করেছে দেখতে পায় তার অর্থ
বিপরীত অর্থে হবে। অর্থাৎ, কল্যাণ কিংবা অর্থ-বিত্তের সাক্ষাত পাওয়ার আশা তার সুদূর পরাহত।

স্বপ্নে উট দেখলে

স্বপ্নে যেভাবে উঠ দেখলে যা হয়
অর্থ
শুধু উট দেখা
বিদেশ ভ্রমণ, দুঃখ বেদনা
অবিবাহিত পুরুষ দেখলে
অবিবাহিত পুরুষ উঠনী দেখা অর্থ হল নারী অর্থবােধক।
বিবাহিত পুরুষ উঠনী দেখা
বিদেশ সফর, দেশ, রাজত্ব, বাড়ী ইত্যাদি বুঝানো
সপ্নে উঠের পিঠে আরোহণ করা
বিদেশ সফর
স্বপ্নে দেখা উটের অবয়বে তার নিজের রুপান্তর ঘটা
এর ব্যাখ্যা হবে- সে দুঃখ-বেদনা অথবা রােগ-ব্যাধির শিকার হবে,  কিন্তু পরে সে আরােগ্য লাভ করবে।
কেউ স্বপ্ন দেখল, সে উটের সাথে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছে
তাহলে এর ব্যাখ্যা হল- আপন শত্রুর সাথে সে বিবাদে লিপ্ত আছে। সংঘর্ষরত উটটি যদি বড় আকারের লাল রং বিশিষ্ট হয়, তাহলে এটা কলহরত শক্রটি অনারব ব্যক্তি হওয়ার আলামত।
স্বপ্নে উটের মালিকানা দেখা অর্থ
তাহলে এটা তার গােত্রীয় শাসক অথবা নেতৃপদে বরিত হওয়ার নিদর্শন
গ্রামে অপরিচিত উট প্রবেশ করা মানে
তাহলে ব্যাখ্যা হবে, সেখানে কোন দুশমনের আগমন ঘটবে। কখনাে এর ব্যাখ্যা বন্যা, মহামারী, রােগ-ব্যাধি ইত্যাদি অর্থেও করা হয়।
স্বপ্নে উটের গােশত দেখতে পাওয়া
ধন-সম্পদের অর্থবােধক
কেউ যদি দেখে সে উটের দুধ দোহন করছে
কোন মহিলার কাছ থেকে সে হালাল সম্পদ লাভ করবে
উটনী নিখোজ হয়ে গেলে
স্ত্রীর সাথে তার বিচ্ছেদ ঘটবে

গরু স্বপ্নে দেখলে

স্বপ্নে যেভাবে গরু  দেখলে যা হয়
অর্থ
স্বপ্নে শিং বিশিষ্ট গরু দেখতে পাওয়া
ক্ষমতাশালী প্রশাসক যার নিকট বৈষয়িক উপকার লাভের আশা করা যায়। কিন্তু যদি শিংবিহীন হয়, তাহলে ব্যাখ্যা হবে- বিত্তহারা খর্বকায় ব্যক্তি সামাজিক মর্যাদা বলতে যার কিছুই নেই এবং লােকের দৃষ্টিতে যে লাঞ্ছিত-অপমানিত। |
গরু পিঠে সওয়ার হওয়া অর্থ
এর মালিক হয়েছে তাহলে ব্যাখ্যা হবে -বাদশাহর পক্ষ  থেকে সে উচ্চপদে আসীন হবে,শাহী অনুগ্রহে ধন্য হবে কোন সরকারি  উচ্চপদস্থ লোক তার প্রভাবাধীন হবে এবং তার মাধ্যমে সে বিপুল অর্থের মালিক হবে।
যদি গরুটি তার ঘরে ঢুকে তার অর্থ
অর্জিত ধন সংরক্ষণ করা তার  পক্ষে সম্বব হবে এবং গরুটি তার কল্যাণ বৃদ্ধির কারণ হবে।
কেউ যদি দেখে সে বহু গরুর মালিক হয়েছে  তার অর্থ
সে বিপুল সম্পদের পরিচালক হবে  এবং এগুলাে তার অধিকারে ন্যস্ত থাকবে।
কেউ যদি স্বপ্ন দেখল গরু  শিং দিয়ে গুতা মারে তার অর্থ
সে কর্মচ্যুত হবে এবং শিং -এর আঘাতের তীব্রতা অনুপাতে সে ক্ষয়-ক্ষতির সম্মুখীন হবে।
কেউ যদি দেখে  গরুর শিং ভেঙ্গে গেছে তার অর্থ
তার কাজে  বিপর্যয় দেখে দিবে এবং তার অবস্থা কর্মচ্যুতির নিকটবর্তী হয়ে যাবে।
স্বপ্নে গরুর শিং দেখা মানে
সাধারণত ব্যক্তির মান-ইযযত, ধন-সম্পদ ও যােগ্যতাকর্মদক্ষতা দ্বারা করা হয়। স্বামী বর্তমান আছে এমন কোন নারী যদি গরুর পিঠে আরােহণ করেছে মর্মে স্বপ্ন দেখে, তাহলে ব্যাখ্যা হবে- স্বামী তার অধীন হবে এবং স্বামীর উপর তার প্রভাব কায়েম হবে। কিন্তু নারী যদি স্বামীবিহীন হয়, তাহলে উপস্থিত ক্ষেত্রে তার বিয়ে সম্পন্ন হয়ে যাবে। কর্মক্ষম বা কর্মরত গরুর গােশত দেখতে পাওয়া তার সম্পদ আর গরুর চামড়া দর্শন করা তার ত্যাজ্য সম্পত্তির অর্থবােধক।
স্বপ্নে গরু জবাই দেখা মানে
ব্যাখ্যা সে মৃত্যুবরণ করবে
যদি স্বপ্নে দেখে গরু কর্মক্ষম কর্মোপযােগী নয়
সে ব্যক্তি সেখানেই মারা যাবে এবং তার মাল-সম্পদ ভাগ-বাটোয়ারা হয়ে যাবে। কাজের বয়স হয়নি এমন গরু বা বাছুর যবাহ করেছে মর্মে স্বপ্ন দেখার অর্থ কোন ব্যক্তিকে সে বশীভূত করবে এবং মৃত্যুর পূর্বেই তার মাল-সম্পদ হাতিয়ে নেবে
একাধিক গরু দর্শন করা মানে
স্বপ্নে দেখা গরুগুলাে যদি অপরিচিত, অজ্ঞাত হয়, এগুলাের তত্ত্বাবধানকারী কোন রাখাল বা পরিচালক বর্তমান না থাকে আর গরুগুলাে কোন স্থানে বা ঘরে ঢুকে পড়েছে মর্মে দেখতে পায়, তাহলে ব্যাখ্যা হবে- সে অঞ্চলে রােগ-ব্যাধি ও মহামারী ছড়িয়ে পড়বে। বিশেষত বলদগুলাের | রং যদি বিভিন্ন রকম হয়, কিংবা কাল বা হলুদ বর্ণ হয়, তাহলে মহামারীর প্রাদুর্ভাব সুনিশ্চিত।

গাভী স্বপ্নে দেখলে কি হয়

স্বপ্নে যেভাবে গাভী দেখলে যা হয়
অর্থ
স্বপ্নে গাভী দেখতে পাওয়া মানে
বছর কিংবা নারী অর্থবােধক তার অর্থ
হৃষ্টপুষ্ট, মােটাতাজা গাভী দেখতে পেল তার অর্থ
এখন সে যদি গাভীগুলাের মালিক হয়েছে মর্মে দেখতে পায় অথবা সেগুলাে যেখানে অবস্থান করে, সে স্থানের মালিকের অধিকারভুক্ত হয়, তাহলে এর অর্থ চলতি সনের গতি ভাল, ফল-ফসলে প্রাচুর্য দেখা দিবে।
গাভীর গোশত চামড়া, লেদা, চোনা  স্বপ্নে দেখার অর্থ
ধন-সম্পদ, টাকা-পয়সা- যা সে উপার্জন করবে। আর যাবতীয় চতুষ্পদ জন্তুর গােবর সবই সম্পদের অর্থ বহন করে। তবে সে মালের বৈধ-অবৈধ, হালাল-হারাম নিরূপণ করা হবে গােবরের গন্ধ অনুসারে।
গাভীর  জন্তুর পেট থেকে নির্গত মল-মূত্র তার অর্থ
একই ধরনের তবে এর পরিমাণ ডুবে যাওয়ার মত অধিক হলে অবৈধ-অপবিত্র মালের অর্থবােধক। যার অন্তরালে কোন কল্যাণ নেই।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে গাভীর দুধ দোহন তার মানে
গোলাম হলে হলে আযাদ হবে, এমনকি আযাদকারিণী মনিবানকে সে বিয়ে করবে।
স্বপ্নে গর্ভবতী গাভী দেখতে পাওয়ার মানে
চলতি সন অতিক্রান্ত হবে অধিক ফলন, প্রাচুর্য ও নিশ্চিত কল্যাণের ভিতর দিয়ে।
কালো গাভী দেখা মানে
চলতি বছরে ফসেল ফলন ভালো হওয়া
গাভীর ঘি, দুধ দেখতে পাওয়া মানে
ধন-সম্পদ, অধিক ফলন ও প্রাচুর্য অর্থবােধক তার জন্য, যে ব্যক্তি এর মালিক হবে এবং হাসিল করবে।

ভেড়া স্বপ্নে দেখলে কি হয়

স্বপ্নে যেভাবে ভেড়া দেখলে যা হয়
অর্থ
ভেড়া স্বপ্নে দেখার  তার অর্থ
ইতােপূর্বে বর্ণিত স্থূলকায় মােটাসােটা ব্যক্তি, যে হবে সামাজিক মর্যাদায় অধিষ্ঠিত, শক্তিশালী, ধনবান, সম্ভ্রান্ত ও বীরত্বের অধিকারী।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে ভেড়ার মালিক হয়েছে তার
সে মান-মর্যাদা ও সম্পদের অধিকারী হবে এবং স্থূলকায় শক্তিমানকে বশীভূত করে নিতে সক্ষম হবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে গোশত লাভের জন্য ভেড়া হত্যা করে ফেলেছে তার অর্থ
কোন মর্যাদাবান শক্তিশালী ব্যক্তির উপর সে প্রাধান্য বিস্তার করবে এবং সফল হবে।
কেউ যদি দেখে চামড়া  খসিয়ে নিয়েছে তার অর্থ
সে পরাভূত লােকটির অর্থ-সম্পদ দখল করে নিবে এবং তারা পরস্পর একে অপর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে।
কেউ যদি  দেখে ভেড়াটির গোশত খেয়েছে  তার অর্থ
সে আলােচ্য ব্যক্তির মাল আত্মসাৎ করবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে ভেড়ার পিঠে আরোহন করেছে তার অর্থ
তার দ্বারা সে কল্যাণ লাভ করবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে নিজের পিঠে ভেড়া চড়ছে তার অর্থ
হবে- সে এক ব্যক্তির ভরণ-পােষণের ব্যয় বহন করছে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে ইচ্ছা -করে তোলেনি ভেড়া নিজেই তার উপর সওয়ার হয়ে আছে তার অর্থ
ইতােপূর্বে বর্ণিত প্রতিপক্ষ লােকটি তার উপর সওয়ার হবে তথা প্রাধান্য বিস্তার করবে এবং তাকে অক্ষম করে দিবে।
কেউ যদি স্বপ্নে  দেখে ভেরাটিকে সে নীচে ফেলে   দিয়েছে তার অর্থ
স্বপ্নদ্রষ্টা প্রতিপক্ষের উপর জয়ী হবে এবং তার শক্তি-সামর্থ বিলীন হয়ে যাবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে সে এক পাল ভেড়ার মালিক তার অর্থ
প্রভাবশালী ও  উচ্চতর লােকদের সে আপন প্রভাববলয়ের অধীন করে নিবে।

বকরী  স্বপ্নে দেখলে কি হয়

স্বপ্নে যেভাবে বকরী দেখলে যা হয়
অর্থ
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে সে বকরী লাভ করেছে  অথবা মালিক হয়েছে তার অর্থ
সে গুণসম্পন্না স্ত্রী লাভ করবে।
কেউ যদি  স্বপ্নে  দেখে গোশত খাওয়ার জন বকরী  কুরবানি করে তার অর্থ
সে কল্যাণের অধিকারী হবে।
কেউ যদি স্বপ্নে  দেখে গোশত খাওয়ার জন্য বকরী জবাই করেনি  তার অর্থ
সে কোন মহিলাকে বিয়ে করবে।
কেউ যদি স্বপ্নে  দেখে ঘর থেকে বকরী বের হয়ে গেছে বা হারিয়ে গেছে বা চুরি হয়ে গেছে তার অর্থ
স্ত্রী সম্পর্কে সে এমন পরিস্থিতির শিকার হবে, যা তার অপছন্দ ও মনােবেদনার কারণ হবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে বকরীর চর্বি তার অর্থ
বকরীর গােশত, চামড়া, দুধ, পশম, চর্বি, বকরীর লেদা ইত্যাদির মধ্য থেকে যে ব্যক্তি এর কোন একটি লাভ করেছে মর্মে স্বপ্ন দেখে, তার জন্য তা গনীমতের মালপ্রাপ্তির নিদর্শন।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে বকরীর বাচ্চা তার অর্থ
তার সন্তান জন্ম হবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে গোশত লাভের জন বকরীর বাচ্চা জবাই করছে তার অর্থ
তার সন্তান অথবা বংশের কেউ মারা যাবে।
কেউ যদি স্বপ্নে বাচ্চার গোশত আহার করছে  তার অর্থ
তাহলে উক্ত বকরীর বাচ্চার কল্যাণে সে সম্পদ লাভ করবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে রান্না করা বকরীর গোশত আহার করছে  তার অর্থ
দর্শনকারী সজীবতা, প্রাচুর্য ও উত্তম রিযিকপ্রাপ্ত হবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে বকরীর কাচাঁ গোশত ভক্ষণ করছে গোশত দ্বারা ব্যক্তিকে আঘাত করছে তার অর্থ
সে কোন লােকের নিন্দাচর্চায় লিপ্ত আছে এবং তার গােশত ভক্ষণ করছে অথবা কথার দ্বারা তার ক্ষতিসাধনে লিপ্ত আছে।
কেউ যদি স্বপ্নে ভুনা করা গােশত আহার করে তার অর্থ
তাহলে সে দুশ্চিন্তা ও কষ্ট-যাতনা জড়িত রিযিক লাভ করবে। এমনকি তার হতাশার চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছে। যাওয়া বিচিত্র নয়।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে ঘরে বা অবস্থানের জায়গায়, চামড়া ছাড়িয়ে দেয়া হয়েছে  তার অর্থ
সেখানে কোন লােক মারা যাবে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে বকরীর কিছু চামড়া ছড়ানো হয়েছে তার অর্থ
সে অংগের সাথে সংশ্লিষ্ট লােকটি মৃত্যুমুখে পতিত হবে।
কেউ যদি দেখে স্বপ্নে বকরীর পা অথবা অংগ খেয়েছে তার অর্থ
তাহলে এটা তার বংশের কোন লােক মারা যাওয়ার অর্থ প্রকাশ করে।
কেউ যদি স্বপ্নে বকরীর পঁজর কিংবা পাশের অংশ দেখতে পায় তাহলে
সেখানে কোন স্ত্রীলােক মারা যাবে।
কেউ যদি স্বপ্নে  বকরী চড়ায় তার অর্থ
জনগণের উপর তার কর্তৃত্ব কায়েম হবে।
কেউ যদি স্বপ্নে খাসি-পাঠা দেখে
স্বপ্নে খাসি-পাঠা দেখতে পাওয়া অদৃষ্ট ও ইজ্জত-সম্মানের অর্থবােধক।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে মাদী দুম্বা বকরীর এর অর্থ
তবে মানের ক্ষেত্রে বকরীর সমপর্যায়ের নয়, তুলনামূলক নিম্ন শ্রেণীর।
স্বপ্নে সাপ দেখলে কি হয়
স্বপ্নে সাপ দেখলে কি হয়

স্বপ্নে সাপ দেখা

স্বপ্ন
ইসলামিক ব্যাখ্যা
স্বপ্নে বড় সাপ দেখার অর্থ
তার শত্রু বড় হবে, অনেক শক্তিশালী হবে
স্বপ্নে ছোট সাপ দেখার অর্থ
তার শত্রু হবে কম শক্তিশালি, ও অপেক্ষাকৃত দুর্বল।
স্বপ্নে সাপের সাথে মারামারি কিংবা যুদ্ধ দেখার অর্থ
বাস্তব জীবনে শত্রুর সাথে জগড়া বিবাদে জড়ানো,
স্বপ্নে সাপের সাথে যুদ্ধে জয়ী হওয়ার অর্থ
বাস্তব জীবনে শত্রুর সাথে জয়ী হওয়া।
স্বপ্নে সাপের সাথে যুদ্ধে পরাজিত হওয়ার অর্থ
বাস্তব জীবনে শত্রুর কাছে পরাজিত হওয়া।
স্বপ্নে সাপে কাটার অর্থ হচ্ছে
সাপে কাটার ব্যাথার অপর নির্ভর করে শত্রু পক্ষ থেকে সে আঘাত ও যাতনাপ্রাপ্ত হবে।
স্বপ্নে সাপ হত্যা করার অর্থ
বাস্তব জীবনে শত্রুর উপর সে বিজয়ী হবে।
স্বপ্নে সাপকে দুই টুকরা করে ফেলেছে অর্থ
বাস্তব জীবনে একইভাবে আপন শত্রুকে সে দ্বিখন্ডিত করে ফেলবে।
স্বপ্নে কেউ সাপের ভয়ে ভীত-বিহ্বল,অথচ সাপটি সে চোখে দেখছে না, এমন স্বপ্ন দেখলে
বাস্তব জীবনে সে শত্রুর অনিষ্ট থেকে সে নিরাপদে থাকবে।
স্বপ্নে যদি কেউ দেখে তার ঘরে সাপ ঢুখেছে ,এমন স্বপ্ন দেখলে
বাস্তব জীবনে তার কোন নারী বা কোন আত্মীয় তার শত্রু হওয়া নিদর্শন।
স্বপ্নে যদি কেউ দেখে তার ঘর থেকে সাপ বের হয়ে গেছে ,এমন স্বপ্ন দেখলে
তাহলে এটা কোন দূরবর্তী আত্মীয় তার শত্রু হওয়ার অর্থবোধক।
কেউ যদি দেখতে পায় তার মলদ্বার,কান অথবা পেট থেকে সাপ নির্গত হয়েছে ,এমন স্বপ্ন দেখলে
তাহলে তার আপন সন্তানদের মধ্য থেকে কেউ শত্রু হবে অথবা আছে।
কেউ যদি স্বপ্নে দেখে সে সাপের বন্ধু হয়েছে ,এমন স্বপ্ন দেখলে
তাহলে এটা তার শত্রু নয়, বরং রাজত্ব ও নেয়ামতপ্রাপ্তি আলামত। সাপের অবয়ব-আকৃতি যত বড় হবে, সে অনুপাতে তার প্রভুত্ব ও কর্তৃত্ব বিস্তৃত হবে ও নেয়ামত বৃদ্ধি পাবে।
স্বপ্নে কালো বর্ণের সাপ দেখলে
বাস্তবে এটি সেনাপতি হিসেবে তার সৈন্য পরিচালনার নিদর্শন।
স্বপ্নে সাদা বর্ণের সাপ দেখলে
বাস্তবে এটি অদৃষ্ট ও সৌভাগ্যের নিদর্শন ।
যদি কেউ স্বপ্নে মসৃণ-তৈলাক্ত ও নরম তুলতুলে সাপের মালিক হয়েছে , এমন স্বপ্ন দেখে তার অর্থ হচ্ছে।
বাস্তবে এটা শাহী ধন-ভান্ডারের মধ্য হতে কোন ধন-ভান্ডার লাভ করার পূর্ব লক্ষণ।


স্বপ্নে মৃত মানুষ দেখলে কি হয়

স্বপ্নে মৃত মানুষ দেখলে কি হয়

স্বপ্ন
ইসলামিক ব্যাখ্যা
স্বপ্নে মৃত্যু দেখলে তার অর্থ হচ্ছে
স্বপ্নে মৃত্যু দেখলে দ্বীনী বিপর্যয় এবং দুনিয়াতে উচ্চ মর্যাদা লাভের প্রমাণ।কিন্তু এর শর্ত হলো তার সাথে কান্নাকাটি ও চিৎকার থাকতে হবে,লাশকে কবর এর উদ্যেশে নিয়ে যাবে কিন্তু দাফন করবে না।যদি দেখে দাফন করে ফেলেছে তাহলে দর্শনকারীর দ্বীনী বিষয়ে কল্যাণ ও সংশোদনের আশাত অনেক দূরে। বরং তার জীবনে শয়তানের প্রভাব ও দুনিয়ার মোহ- মায়া থাকে ধীরে ধীরে প্রবল ভাবে গ্রাস করবে।তদ্রূপ যে সংখ্যক মানুষের জানাযায় সে যোগদান করেছে তার সমপরিমাণ মানুষ তার প্রভাব বলয়ে বিচরণ করবে।তাদের সবার উপরে সে প্রাধান্য বিস্তার করে দোর্দন্ড প্রতাপে নেতৃত্ব করেবে।
স্বপ্নে নিজের মৃত্যু দেখলে তার অর্থ হচ্ছে
স্বপ্নে নিজের মৃত্যু দেখলে বাস্তব জীবনে তার দ্বীন ও ঈমানের দুর্বলতা এবং দৃষ্টিশক্তিতে অন্ধত্বের প্রভাব প্রতিফলিত হবে।
জীবিত অবস্থায় কেউ যদি স্বপ্নে নিজেকে কবরবাসী দেখে তাহলে তার অর্থ হচ্ছে
সে কারাবন্দী হবে অথবা ব্যক্তিগত ব্যপার নিয়ে কঠিন সমস্যার সম্মুখীন হবে।
কেউ যদি দেখে সে কবর খুঁড়ছে তার অর্থ হলো
আপন মহল্লা বা শহরে সে একটি ঘর নির্মাণ করবে।
কোন ব্যক্তি ঘুমন্ত অবস্থায় মৃত লোককে দেখতে পায় এবং তার সাথে কোন বিষয় জানতে চায় আর সে বলে দেয়,এইরকম স্বপ্ন দেখার অর্থ
এই রকম স্বপ্ন সত্য ও সঠিক।এতে কম বেশ বা ব্যতিক্রমের কোন সম্ভাবনা নাই ।অর্থাৎ  মৃত ব্যক্তি যদি বলে সে ভাল অবস্থায় আছে তাহলে সে সুখেই আছে পরকাল তার শান্তিতে কাটছে । মৃত ব্যক্তির সাথে যদি নিজের ও পরের যে অবস্থার কথা বলবে তা সত্য ও সঠিক রুপে নিতে হবে।কেননা মৃত ব্যক্তি বর্তমানে মাকামে হক তথা চরম সত্য জগতে বাস করছে ,যেখানে মিথ্যার কোন স্থান নেই। কাজেই যে সংবাদ সে প্রাদান করছে তাতে কোন মিথ্যার  আশ্রয় নেয়ার তার কোন সুযোগই নেই।
মৃত ব্যক্তিকে যদি উত্তম অবস্থায় দেখতে পায় ।যেমন পরিধানে সাদা কিংবা সবুজ কাপড় ও মুখে হাসি অথবা সে খুশির সংবাদ প্রধান করে, এমন স্বপ্ন দেখলে
এটা মৃত ব্যক্তির পরকালীন জীবন সুখ ও শান্তির নির্দেশন।
কেউ যদি মৃত ব্যক্তিকে মলিন চেহারা,ময়লা কাপড়,জীর্ণ বসন,এলোমেলো চুলে এবং রাগানিত অবস্থায় দেখতে পায়, এমন স্বপ্ন দেখলে
মৃত ব্যক্তির পরকালীন জীবনে দুঃখময় এবং সে বিপদগ্রস্ত।
মৃত ব্যক্তিকে কেউ যদি অসুস্থ দেখে স্বপ্নে তাহলে এর অর্থ
সে ব্যক্তি গুনার প্রতিদান ভোগ করছে ।
ইতিপূর্বে মারা গেছে এমন মানুষকে কেউ দ্বিতীয়বার মারা যাচ্ছে এবং আরও দেখলে চিৎকার ও বিলাপহীন অবস্থায় তার জন্য কান্নাকাটি করছে, এমন স্বপ্ন দেখলে
বাস্তবে  পরিবারের কারো বিয়ে হবে।
স্বপ্নে কান্নার সাথে উচ্চস্বরে বিলাপ ও চিৎকার করতে দেখলে এর অর্থ হবে
বাস্তব জীবনে তার সন্তান বা বংশের কোন লোক মারা যাবে।
স্বপ্নে মৃত লোকের জন্য কবর খনন করছ দেখলে এর অর্থ দাঁড়ায়
বস্তবে মৃত লোকের পরিচিত হলে তার জাগতিক ও পরকালীন বিষয়ে দর্শনকারী এমন তার পথ অনুসরন করবে এবং অপরিচিত হলে দর্শনকারীর এমন বিষয় অর্জনের চেষ্টা করবে যা তার পক্ষে হাসিল করা সম্ভব হবে না।
স্বপ্নে মৃত ব্যক্তি হতে কিছু গ্রহন দেখলে তার অর্থ
মৃত ব্যক্তি হতে কিছু গ্রহন উত্তম কিন্তু তাকে কিছু দেয়া অশুভ লক্ষণ।কেউ যদি দেখে মৃত ব্যক্তি তাকে কোন জাগতিক বস্তু দান করেছে তা হলে সে কল্যাণনের অধিকারী হবে ও ধারণা করে নাই এমন জায়গা থেকে রিযিক লাভ করবে ।
স্বপ্নে যদি কোন জীবিত ব্যক্তি দেখে সে কোন মৃত ব্যক্তিকে জীবিত ব্যক্তির কাপড় বা তার পরিধানের কাপড় পরার জন্য দিয়েছে এবং সেটি মৃত ব্যক্তি গ্রহণ করেছে,পরেও ফেলেছে, এমন স্বপ্ন দেখলে
জীবিত ব্যক্তি মারা যাবে এবং মৃত্যুর পর মৃত ব্যক্তির সাথে মিলিত হবে।
স্বপ্নে দেখল মৃত ব্যক্তির সাথে কোলাকুলি করছে অথবা তাকে হত্যা করে ফেলেছে এমত অবস্থায় এর অর্থ দাড়াবে
দর্শনকারী জীবিত লোকটির বয়স বৃদ্ধি পাবে ।
কেউ স্বপ্ন দেখল,তার ঘরে মৃত ব্যক্তি প্রবেশ করেছে এবং সে ও মৃত লোকের সাথে রয়েছে ,কিন্তু ঘরটা তার অপরিচিত,এ অবস্থায় এর অর্থ দাড়াবে
তাহলে সে ব্যক্তি মারা যাবে এবং মৃত্যুর পর মৃত ব্যক্তির সাথে মিলিত হবে।
কেউ যদি স্বপ্ন দেখে তার ঘরে রুগ্ন মৃত ব্যক্তি প্রবেশ করেছে তাহলে
তার  রোগ স্থায়িত্ব লাভ করবে এমঙ্কি সে মৃত্যুবরণ ও করতে পারে।
কেউ যদি দেখে মৃত ব্যক্তির অঙ্গ-প্রতঙ্গ বিষ ব্যথায় জর্জরিত, এমন স্বপ্ন দেখলে
সে অঙ্গ যার সাথে সংশিষ্ট কবর জগতের তার সম্পর্কে জিজ্ঞাসা বাদ করা হচ্ছে।
স্বপ্নে যদি দেখে মৃত ব্যক্তি তার কাছ থেকে রুটি কিংবা আংটি গ্রহণ করেছে , এমন স্বপ্ন দেখলে
তার ছেলে ,মেয়ে তাকলে মারা যাবে বা ধন-সম্পদ থাকলে বিনষ্ট হয়ে যাবে ।

বিঃদ্রঃ  এই ব্লগের প্রত্যেকটা ব্লগ পোস্ট Sylhetism ব্লগের নিজস্ব ডিজিটাল সম্পদ। কেউ ব্লগের কোন পোস্ট কিংবা আংশিক অংশ ব্লগের কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া কপি পেস্ট করে অন্য কোথাও প্রকাশ করলে ব্লগ কর্তৃপক্ষ ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা করার অধিকার রাখে। এবং অবশ্যই কপিরাইট ক্লাইম করে যে মাধ্যমে এই ব্লগের পোস্ট প্রকাশ করা হবে সেখানেও কমপ্লেইন করা হবে।

এই ব্লগের কোন লেখায় তথ্যগত কোন ভুল থাকলে আমাদের Contact পেইজে সরাসরি যোগাযোগ করুন, আমরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তথ্য যাচাই করে লেখা আপডেট করে দিবো।

এই ব্লগের কোন স্বাস্থ বিষয়ক পোস্টের পরামর্শ নিজের বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করার আগে অবশ্যই বিশেষজ্ঞদের মতামত নিবেন, আমরা স্বাস্থ বিষয়ে কোন বিশেষজ্ঞ না, আমাদের উদ্দেশ্য ও লক্ষ হচ্ছে সঠিক তথ্য পরিবেশন করা। সুতারাং কোন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার দায়ভার অবশ্যই আমরা নিবো না। ধন্যবাদ, ব্লগ কর্তৃপক্ষ।

Author

1 thought on “স্বপ্নের ব্যাখ্যা, স্বপ্নে কি দেখলে কি হয়?”

  1. স্বপ্ন. দেখলাম…Ami rater belay dorjar samne daray cilam,,hotath dekhi akashe sonali bornne qraner ayat base othce,, agulu dekhte dekhte aro khujte khujte dure coli geci,,, mugddo hoi dekhcilam.. Hotath kore akasher majkhane khali hoi akta surunggo dekha gece,, arpor keo akjon akash theke amy deke bolce cole aso amader kace, sathe sathe amr atta akashe ure cole jaccilo r ami cithkar diccilam এটা আমার ফ্রেন্ডে দেখছে প্লিজ আমার এই বর্ণনা দিন প্লিজ 01839171387

Leave a Comment

Your email address will not be published.

You cannot copy content of this page