সিম রিপ্লেসমেন্ট করার নিয়ম, স্টেপ বাই স্টেপ গাইড ২০২২

সিম রিপ্লেসমেন্ট

সিম রিপ্লেসমেন্ট বা সিম প্রতিস্থাপন হল একটি প্রক্রিয়া, যার মাধ্যমে আপনি বর্তমান সিমকে কার্ডকে আপগ্রেড করে নিতে পারবেন এবং হারিয়ে গেলে বা বন্ধ হয়ে গেলে সেই সিম উদ্ধার করতে পারবেন। উদাহরণসরুপ- বর্তমান  প্রেক্ষাপটে ৪জি মোবাইল নেটওয়ার্কের যুগে আমাদের দেশের মোবাইল কোম্পানিগুলো ৪জি মোবাইল হ্যান্ডসেট বাজারে নিয়ে আসছে। তাই আপনি যদি ৪জি মোবাইল হ্যান্ডসেটের সাথে ৪জি সিম ব্যবহার করেন তাহলে আপনার ইন্টারনেটের গতি দিগুণ বেড়ে যাবে। সিম হচ্ছে ছোট্ট একটি মাইক্রোচিপ। এটি আমাদের অনেক সময় হারিয়ে যায় তখন আপনি  সিম রিপ্লেসমেন্ট এর মাধ্যমে এই সিমটি উদ্ধার করে নিতে পারবেন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সিম রিপ্লেসমেন্ট আমরা সিম আপগ্রেড করতে ব্যবহার করে থাকি।

তাই বলা হয়, দ্রুতগতির  ইন্টারনেট পরিষেবা পেতে আপনাকে অবশ্যই সিম রিপ্লেসমেন্ট করতে হবে। এই সেবা পেতে হলে আপনাকে কিছু পরিমান টাকা ব্যায় করতে হবে। সিম আমাদের জীবনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটা জিনিসের মধ্যে একটি। সিম রিপ্লেসমেন্ট এর মাধ্যমে আপনি আপনার নেটওয়ার্ক এর অনেক বেশি সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। 

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস

সিম রিপ্লেসমেন্ট করার জন্য প্রধানত  ৩টি জিনিস এর প্রয়োজন হয়।

  • আপনার সিম নাম্বারটি লাগবে।
  • এনআইডি কার্ড এর ফটোকপি লাগবে।
  • আপনি যার নামে আপনার সিমটি রেজিষ্ট্রেশন করেছেন সেই ব্যক্তিকে অবশ্যই রিপ্লেসমেন্ট পয়েন্টে উপস্থিত থাকতে হবে।

সিম রিপ্লেসমেন্ট করার নিয়ম

আমাদের দেশ থেকে যেকোনো সিম রিপ্লেসমেন্ট করতে হলে আপনাকে সবার প্রথমে সেই সিমের কাস্টমার কেয়ারে যেতে হবে। তারপর সেই কাস্টমার কেয়ারের দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে আপনার সিম প্রতিস্থাপন সম্পর্কে বলুন। তারপর সেই দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি আপনার কাছে যে সিমটি প্রতিস্থাপন করতে চান সেই সিমের নম্বর চাইবে। তারপর তারা আপনার কাছে  এন আইডি  কার্ড বা জাতীয় পরিচয়পত্র এর ফটোকপি চাইবে। তারপর তিনি  আপনার ২ হাতের ৪টি আঙুলের ছাপ নিবেন। তারপর তারা আপনার কাছ থেকে একটি নির্দিষ্ট পরিমান টাকা নেবেন এবং সবকিছু যদি ঠিক থাকে তাহলে তারা আপনার সিমটি  প্রতিস্থাপন করে দেবে।

সিম রিপ্লেসমেন্ট খরচ

বর্তমান সময়ে আমাদের দেশের জনপ্রিয় সিম গুলোর মধ্যে রয়েছে বাংলালিংক সিম, জিপি সিম, রবি সিম, এয়ারটেল সিম এবং টেলিটক সিম। আপনি যেই সিমই ব্যবহার করেন না কেন, এই সিমগুলো প্রতিস্থাপন করতে হলে আপনাকে সাধারণত ১৫০ থেকে ২৫০ টাকার মত খরচ করতে হতে পারে।

সিম রিপ্লেসমেন্ট
সিমের নমুনা ফটো

অসুবিধা

সিম রিপ্লেসমেন্ট এর বেশ কিছু  সমস্যা রয়েছে। আপনি যেই সিমটি রিপ্লেসমেন্ট বা প্রতিস্থাপন করতে চান, সেই সিমটি যদি আপনার নামে নিবন্ধিত না হয়, তাহলে আপনি কিন্তু সেই সিমটি প্রতিস্থাপন করতে পারবেন না। এর কারন হচ্ছে ফিংগার প্রিন্ট বা আঙুলের ছাপ এবং ভোটার আইডি কার্ড। যেই ব্যক্তির নামে আপনার সিমটি নিবন্ধন করা আছে তার সাথে আপনার আঙুলের ছাপ মিলবে না। তার হাতের আঙুলের ছাপ ছাড়া আপনার সিমটি প্রতিস্থাপন করা সম্ভব হবে না। তাই নিজের নামে সিম কিনলে আপনার কাজ অনেক  সহজ হবে। সিমে  কোন দিন কোন সমস্যা হলে আপনি নিজে যে কোন সময় সিম কাস্টমার কেয়ারের কাছে নিয়ে গিয়ে ঠিক করে নিতে পারবেন। কিন্তু আপনি যদি অন্য কারো নামে সিম কিনে থাকেন তবে আপনাকে আগে সেই ব্যক্তির কাছে যেতে হবে। যা খুবই কষ্টসাধ্য।

আরো পড়ুনঃ প্রোগ্রামিং কি এবং কেন? জেনে নিন কোন প্রোগ্রামিং ভাষাগুলো সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

কিভাবে সিম রিপ্লেসমেন্ট করবেন?

আশা করি আপনি বুঝতে পারছেন যে  আমাদের দেশে সিম রিপ্লেসমেন্ট বা প্রতিস্থাপন এর সমস্ত নিয়মাবলী এবং সিম প্রতিস্থাপন করতে আপনার সাথে কী কী কাগজপত্র নিতে হবে এবং সিম প্রতিস্থাপন  করতে কত টাকা খরচ হতে পারে। আপনাদের সুবিধার্তে বাংলাদেশের বেশ কিছু সিমের প্রতিস্থাপন এর তথ্য এবং এর জন্য কেমন অর্থ খরচ করতে হবে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলঃ 

গ্রামীণফোন সিম প্রতিস্থাপন

 আপনি যদি জিপি সিম এর গ্রাহক হয়ে থাকেন এবং আপনি আপনার সিমটি রিপ্লেসমেন্ট করার চিন্তা করে থাকেন তাহলে এই লিখাটি আপনার জন্যই।

  • সর্ব প্রথম আপনাকে আপনার স্থানীয় এলাকায় একটি জিপি রিপ্লেসমেন্ট পয়েন্টে যেতে হবে। কিন্তু তার আগে একটি ফ্লেক্সি দোকানে বা যেগুলিতে বায়োমেট্রিক্স খুচরা পয়েন্ট রয়েছে সেখানে যান৷ সেখানে গিয়ে দোকানদারকে আপনার সিমটি দেখিয়ে বলবেন যে আপনার সিম প্রতিস্থাপনের যোগ্য কিনা, দোকানদার যদি বলে সিমটি প্রতিস্থাপন  করার যোগ্য তাহলে আপনি জিপি কাস্টমার কেয়ারে যাবেন। তারপর তারাই বলে দেবে যে আপনি কিভাবে সিম প্রতিস্থাপন করতে পারবেন।
  • তাছাড়া, সিম রিপ্লেসমেন্ট নিয়ে আরও তথ্য পেতে  আপনি আপনার ফোনের ডায়াল অপশনে যান এবং ডায়াল করুন *৪৫৮*৪৪* তারপর আপনার ফোন নম্বরটি দিন এবং  # চাপুন। এর মাধ্যমে আপনি আরো সহজে জানতে পারবেন যে আপনার সিমটি  প্রতিস্থাপন এর যোগ্য কিনা। 
  • আপনি যদি জিপি সিমটি প্রতিস্থাপন করতে চান, তাহলে আপনাকে গ্রামীণফোনের দেওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ফি আপনাকে প্রদান করতে  হবে। গ্রামীণফোন  ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে জানা গেছে যে যদি আপনি গ্রামীণফোন সিম প্রতিস্থাপন করেন তাহলে আপনাকে ২০০ টাকা ফি দিতে হবে।
  • জিপি সিমে রিপ্লেসমেন্ট এর একটি বড় সুবিধা হল আপনি চাইলে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে আপনার জিপি সিম রিপ্লেসমেন্ট করতে পারেন। কিন্তু এর শর্ত হল  মাসের একটা নির্দিষ্ট সময়ে বিনামূল্যে সিম প্রতিস্থাপন করে দেয়ার সেবা দেয়া হয়।

সিম প্রতিস্থাপন অফার

বর্তমান যুগ হচ্ছে ৪জি নেটওয়ার্কের যুগ। আপনার গ্রামীণফোন সিমে  আপনি যদি উচ্চ গতির ইন্টারনেটের সুবিধা পেতে চান তাহলে আপনার সিমটিকে ৪জিতে আপগ্রেড করে নিতে হবে। গ্রামীণফোনে সিম  প্রতিস্থাপন করলে আপনি  উচ্চ-গতির ইন্টারনেটের পাশাপাশি সাশ্রয়ী মূল্যের অনেক ইন্টারনেট প্যাকেজ কিনতে পারবেন। তাছাড়া, সিম প্রতিস্থাপনের সাথে রয়েছে ৭.৫  জিপি ইন্টারনেট প্যাকেজ একদম ফ্রি।

জিপি সিম প্রতিস্থাপন করতে অনলাইনে আবেদন করতে এই লিংকটি ভিজিট করুনঃ জিপি সিম রিপ্লেসমেন্ট

সিম রিপ্লেসমেন্ট
4জি নেটওয়ার্ক থেকে 5জি নেটওয়ার্কে যাওয়ার সময় সিম প্রতিস্থাপন করতে হতে পারে।

রবি সিম রিপ্লেসমেন্ট

আপনি যদি রবি সিম এর গ্রাহক হয়ে থাকেন এবং আপনি আপনার সিমটি রিপ্লেসমেন্ট করার চিন্তা করে থাকেন তাহলে এই লিখাটি আপনার জন্য।

  • সবার প্রথমে রবি সিম রিপ্লেসমেন্ট এর জন্য আপনার নিকটস্থ কাস্টমার কেয়ার বা বায়োমেট্রিক্স রিটেইলার পয়েন্টে যোগাযোগ করতে হবে। আপনার সিমটি  প্রতিস্থাপন করার জন্য যোগ্য কিনা তার জন্য একটি ফ্লেক্সি দোকানে গিয়ে আপনার সিম সম্পর্কে আগেই জেনে নিন। যোগ্য বিবেচিত হলে  রবির কাস্টমার কেয়ারের  লোকেরা রবি সিম প্রতিস্থাপন করতে  যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনার সিমটি  প্রতিস্থাপন করে দেবে। 
  • রবিতেও  আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র এবং বায়োমেট্রিক্স অর্থাৎ আঙুলের ছাপ প্রয়োজন হবে। 
  • তবে রবি সিম কোম্পানি তাদের ওয়েবসাইটে একটি বিশেষ সুবিধা চালু করেছে। আপনি যদি শহর বা জেলা শহরে বসবাস করেন তাহলে আপনি রবি ডোর স্টেপ থেকে সার্ভিস নিতে পারবেন।  ডোর স্টেপ এর মানে হল আপনার সব কিছু যদি ঠিক থাকে তাহলে রবির কাস্টমার কেয়ারের ডেলিভারি ম্যান আপনার বাসায় এসে আপনার রিপ্লেসক্রিত সিমটি দিয়ে যাবে এবং যাবতীয় তথ্য পূরণ করতে সাহায্য করবে। 
  • আপনি রবি ডোর স্টেপ সার্ভিসটি পেতে চাইলে আপনার ফোনের অথবা কম্পিউটারের কোন একটা ব্রাউজারে গিয়ে রবি ডোর স্টেপ সার্ভিস লিখে সার্চ করুন। রবির অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটিতে গিয়ে প্রথমে  সিম রিপ্লেসমেন্টে ক্লিক করতে হবে। তারপর তাদের দিক নির্দেশনা অনুযায়ী আপনার নাম, ঠিকানা, জেলা শহর বা বিভাগীয় কোন শহরে অবস্থান করেন ইত্যাদি তথ্যগুলো দিয়ে ফর্মটি পুরন করুন। সব কিছু ঠিক থাকলে রবির টিম আপনার বাসায় চলে যাবে। আপনারা যারা রবি ডোর স্টেপ সার্ভিস নেবেন তাদের সিম প্রতিস্থাপনের জন্য ২৫০ টাকা ফি দিতে হবে। সহজ কথায়, সিম প্রতিস্থাপন এর জন্য ফি ২০০ টাকা এবং ডেলিভারির জন্য চার্জ ৫০ টাকা।

সিম প্রতিস্থাপন অফার

রবি সিম রিপ্লেসমেন্ট সেবার পাশাপাশি বিভিন্ন অফার দিয়ে থাকে। যেমন আপনি যদি আপনার সিমটি  প্রতিস্থাপন করেন তাহলে রবি আপনাকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে কয়েক জিবি ইন্টারনেট প্যাকেজ ফ্রিতে দিবে। তাছাড়াও ৪জি সিমে তারা অনেক ধরনের বিশেষ  সুবিধা দিয়ে থাকে গ্রাহকদের জন্য। আশা করি আপনি রবি সিম প্রতিস্থাপনের নিয়ম সঠিকভাবে বুঝতে পেরেছেন। 

রবি সিম রিপ্লেসমেন্ট করতে অনলাইনে আবেদন করতে এই লিংকটি ভিজিট করুনঃ রবি সিম রিপ্লেসমেন্ট

বাংলালিংক সিম প্রতিস্থাপন

আপনি যদি বাংলালিংক সিম এর গ্রাহক হয়ে থাকেন এবং আপনি আপনার সিমটি রিপ্লেসমেন্ট করার চিন্তা করে থাকেন তাহলে এই লিখাটি আপনার জন্য।

  • আপনি যদি বাংলালিংক সিম এর গ্রাহক হয়ে থাকেন এবং আপনি আপনার বাংলালিংক সিমটি প্রতিস্থাপন করতে চান তবে আপনাকে একটি  নিকটস্থ বায়োমেট্রিক্স রিটেইলার পয়েন্টে যোগাযোগ করতে হবে। এছড়াও বাংলালিংক কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করে এইখান থেকে যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করে  বাংলালিংক সিমটি প্রতিস্থাপন করে নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে, আপনাকে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ফি দিতে হবে। বাংলালিংক এর নির্দিষ্ট টাকার পরিমান হল ২০০ টাকা। 
  • তারপরে কাস্টমার কেয়ারের লোকেরা আপনাকে আপনার সিমটি সুবিধামত এবং আপনার প্রয়োজন অনুসারে প্রতিস্থাপন করতে সহায়তা করবে। বাংলালিংকও বিনামূল্যে সিম প্রতিস্থাপন করার সুযোগ দিয়ে থাকে মাসের নির্দিষ্ট একটা সময়ে।
  • আপনার সিমটি প্রতিস্থাপন এর যোগ্য কিনা তা দেখে নেয়ার জন্য আপনাকে সবার প্রথমে আপনার ফোনের ডায়াল অপশনে চলে যেতে হবে এবং সেখানে ডায়াল করুন *৫০০০*৪০#। এর মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন যে  আপনার সিমটি ফ্রিতে প্রতিস্থাপন করার যোগ্য কিনা। অথবা আপনি চাইলে বাংলালিংক এর মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করুন free4G তারপর ২৫০০ নাম্বারে পাঠিয়ে দিন। যদি যোগ্য হয় তাহলে আপনাকে এএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে। 

আরো পড়ুনঃ ভিপিএন কি? কিভাবে কাজ করে? বিস্তারিত ইতিহাস

সিম রিপ্লেসমেন্ট অফার

বাংলালিংক সিম রিপ্লেসমেন্ট এর পর আপনাকে একটি আকর্ষণীয় অফার প্রদান করা হবে সেটি হচ্ছে  ৮ জিবি ফ্রি ইন্টারনেট। আমি আশা করি আপনি বাংলালিংক সিম প্রতিস্থাপনের নিয়ম এবং এর খরচ কেমন হবে সেটি সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।

বাংলালিংক সিম রিপ্লেসমেন্ট করতে অনলাইনে আবেদন করতে এই লিংকটি ভিজিট করুনঃ বাংলালিংক সিম রিপ্লেসমেন্ট

এয়ারটেল সিম রিপ্লেসমেন্ট

আপনি যদি এয়ারটেল সিম এর গ্রাহক হয়ে থাকেন এবং আপনি আপনার সিমটি রিপ্লেসমেন্ট করার চিন্তা করে থাকেন তাহলে এই লিখাটি আপনার জন্য।

  • এয়ারটেল সিম রিপ্লেসমেন্ট এর জন্য আপনাকে  আপনার নিকটতম বায়োমেট্রিক্স রিটেইলার পয়েন্টের যেতে হবে। বায়োমেট্রিক্স রিটেইলার পয়েন্ট এর লোকেরা আপনাকে আপনার এয়ারটেল সিম প্রতিস্থাপন করতে সাহায্য করবে।  
  • এয়ারটেল সিম রিপ্লেসমেন্ট সার্ভিস ২০০ টাকায় রাখা হয়েছে।  আপনি নিকটতম এয়ারটেল পরিষেবা কেন্দ্র বা বায়োমেট্রিক্স রিটেইলার পয়েন্টে গিয়ে এবং আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর এবং জন্ম তারিখ প্রদান করতে হবে।
  • বর্তমানে এয়ারটেল সিমেও অপারেটর ডোর স্টেপ সার্ভিস চালু করেছে।  আপনি যদি শহরে থাকেন অথবা নিকটস্থ এয়ারটেল পরিষেবা কেন্দ্র থেকে সিম সংগ্রহ করতে আগ্রহী হন তবে আপনি এই পরিষেবাটি পেতে পারেন৷  এই সেবাটি পেতে হলে তাদের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে এবং সেখানে গিয়ে হোম ডেলিভারি সার্ভিসে ক্লিক করতে হবে। তারপর সেখানের দিক নির্দেশনা অনুযায়ী  আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর, জন্ম তারিখ এবং আপনার নাম ইত্যাদি দিয়ে ফর্মটি পুরন করুন। অপারেটর ডোর স্টেপ সার্ভিসটি নিতে হলে আপনাকে ২৫০ টাকার মত খরচ করতে হবে। ডেলিভারি চার্জ ৫০ টাকা।

আরো পড়ুনঃ কর্মসংস্থান ব্যাংক কি? কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পাওয়ার বিভিন্ন উপায়।

সিম রিপ্লেসমেন্ট অফার

এয়ারটেল সিম রিপ্লেসমেন্ট এর একটি বড় সুবিধা হল যে আপনাকে সিম আপগ্রেড করার পর ৭ জিবি ইন্টারনেট বোনাস দেয়া হবে। এয়ারটেল ইন্টারনেট এর উচ্চ গতির সাথে, আপনি কোনও বাধা ছাড়াই ভিডিও কলিংয়ের অধিক সুবিধা নিতে পারবেন। উচ্চগতির ইন্টারনেট হওয়ার কারনে কোন রকম বাফারিং ছাড়াই যে কোন ভিডিও শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত দেখতে পারেন। আপনি যদি কোন কিছু ডাউনলোড অথবা আপলোড করতে চান তবে আপনি খুব সহজে এবং অনেক কম সময়ে ডাউনলোড বা আপলোড করতে পারেন।  তাছাড়া, এয়ারটেল সিম এর আরেকটি আরেকটি বড় সুবিধা হচ্ছে আপনি  আপনার বর্তমান ২জি বা ৩জি সিম দিয়ে ৪জি  ব্যবহারকারীদের অফার ব্যবহার করে ইন্টারনেট প্যাকেজ আপনি উপভোগ করতে পারবেন।  তাই আর দেরি না করে আপনার এয়ারটেল সিমটি প্রতিস্থাপন করে ফেলুন। আশা করি, আপনি এয়ারটেল সিম রিপ্লেসমেন্ট নিয়ে যাবতীয় দিক নির্দেশনা পেয়ে গেছেন।

এয়ারটেল সিম রিপ্লেসমেন্ট করতে অনলাইনে আবেদন করতে এই লিংকটি ভিজিট করুনঃ এয়ারটেল সিম রিপ্লেসমেন্ট


সিম রিপ্লেসমেন্ট করতে কত টাক এবং কি কি লাগে 

টেলিটক সিম রিপ্লেসমেন্ট

আপনি যদি টেলিটক সিম এর গ্রাহক হয়ে থাকেন এবং আপনি আপনার সিমটি রিপ্লেসমেন্ট করার চিন্তা করে থাকেন তাহলে এই লিখাটি আপনার জন্য।

  • যদি আপনি আপনার টেলিটক সিমটি রিপ্লেসমেন্ট করতে চান তাহলে আপনার ন্যাশনাল কার্ড এর প্রয়োজন হবে। 
  • তারপর আপনার টেলিটক সিম রিপ্লেসমেন্ট করার জন্য নিকটস্থ কাস্টমার কেয়ারে গিয়ে যোগাযোগ করতে হবে।  
  • আপনার টেলিটক সিমটি রিপ্লেসমেন্ট করতে হলে ১৫০ টাকার মত খরচ করতে হবে।

সিম রিপ্লেসমেন্ট অফার

সিমে ব্যবহারে  সাশ্রয়ী অফার আমাদের সবারই পছন্দ। আপনি যদি টেলিটক সিম ব্যবহার করেন তাহলে বুঝতে পারবেন যে এই সিম কতটা সাশ্রয়ী। টেলিটক সিমটি রিপ্লেসমেন্ট করলে অনেক সাশ্রয়ী ইন্টারনেট প্যাকেজ কিনতে পারবেন।

টেলিটক সিম রিপ্লেসমেন্ট এর আরও যাবতীয় তথ্য পেতে লিংকটি ভিজিট করুনঃ টেলিটক সিম রিপ্লেসমেন্ট

বিঃদ্রঃ এই ব্লগের প্রত্যেকটা ব্লগ পোস্ট Sylhetism ব্লগের নিজস্ব ডিজিটাল সম্পদ। কেউ ব্লগের কোন পোস্ট কিংবা আংশিক অংশ ব্লগের কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া কপি পেস্ট করে অন্য কোথাও প্রকাশ করলে ব্লগ কর্তৃপক্ষ ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা করার অধিকার রাখে। এবং অবশ্যই কপিরাইট ক্লাইম করে যে মাধ্যমে এই ব্লগের পোস্ট প্রকাশ করা হবে সেখানেও অভিযোগ সাবমিট করা হবে।

ধন্যবাদ, ব্লগ কর্তৃপক্ষ।

Author

Leave a Comment

Your email address will not be published.

You cannot copy content of this page