ফেমিকন

ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, দাম ও উপকারিতা ২০২২

বর্তমান বিশ্বে লক্ষ লক্ষ মহিলা জন্মবিরতিকরণ পিল ব্যবহার করে তাদের পরিবার পরিকল্পনা করছেন। তাই যারা  জন্মবিরতিকরণের জন্যে খুব চিন্তিত তারা ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারেন, এবং যাদের পক্ষে তাৎক্ষণিক বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া সম্ভব নয় তারা ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম ও স্টেপ বাই স্টেপ গাইড অনুযায়ী ফেমিকন খাওয়া শুরু করে দিতে পারেন। আজকের লেখা আমি তুলে ধরবো ফেমিকনের অফিসিয়াল ব্যবহার বিধি।

যেসব কারণে ফেমিকন খাবেন

  • খাবার পিল একটি সুসহনীয় এবং কার্যকরী (৯৭%-৯৯.৯%) আধুনিক জন্মবিরতিকরণ পদ্ধতি।
  • খাবার পিল একটি সম্পূর্ণ অস্থায়ী এবং পরিবর্তনশীল জন্মবিরতিকরণ পদ্ধতি। অর্থাৎ যতদিন গর্ভধারণ করতে না চান, ততদিন পিল খেতে থাকুন। পিল খাওয়া বন্ধ করলেই আপনার গর্ভধারণ ক্ষমতা ফিরে আসবে।
  • খাবার পিল খেলে মাসিক নিয়মিত হয় এবং মাসিকের অনেক অসুবিধা কমে যায়।
  • গর্ভধারণ থেকে বিরত রাখা ছাড়াও খাবার পিল অনেক ক্ষেত্রে শরীরের অনেক উপকার করে।
ফেমিকনের প্যাকেট
ফটোঃ ফেমিকনের প্যাকেট

ফেমিকনের পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া

এক এক ধরনের খাবার পিল এক এক ধরনের মহিলার শরীরের সাথে মানিয়ে যায়। তবে কোন কোন মহিলার প্রাথমিক পর্যায়ে পিল খেলে কিছু অসুবিধা দেখা দিতে পারে। যেমন মাথা ঘােরা, মাথাব্যথা, বমি বমি ভাব অথবা পিল খাওয়াকালীন সামান্য ফোটা ফোটা রক্ত মাসিকের আকারে বের হতে পারে। নিয়মিত পিল খেতে থাকলে দুই তিন মাসের মধ্যে এ সমস্ত উপস্বর্গ স্বাভাবিকভাবেই দূর হয়ে যায়। যেসব মহিলার ক্ষেত্রে এ ধরনের উপস্বর্গ দুই তিন মাসের পরেও থেকে যায়, তাদেরকে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে এবং ডাক্তারের নির্দেশমত পরবর্তী মাসিক শুরু থেকে অন্য কোন পদ্ধতি নিতে হবে।

রিলেটেডঃ ইমার্জেন্সি পিল খাওয়ার নিয়ম, ও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

নিচে ফেমিকন খাওয়ার যে ব্যবহারবিধি আছে তার ফটো দেওয়া হলোঃ

ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম
ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম ১
ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম ২
ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম ২

ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম

ফেমিকন এর ব্যবহার বিধি বা ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম নিচে দেওয়া হলো, এটা আমাদের নিজস্ব কোন বানানো লেখা না, ফেমিকন পিলের ভিতরে যে ব্যবহার বিধি থাকে সেখান থেকে হুবুহুবু তুলে ধরা হয়েছে। তাই নিঃসন্দেহে নিচের নিয়ম মাফিক আপনি এই পিল খাওয়া শুরু করতে পারেন।

১। পিল খেতে মনস্থির করলে আপনার পরবর্তী মাসিক শুরু না হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

২। মাসিক শুরু হওয়ার প্রথম দিন থেকে মােটা তীর চিহ্নিত সাদা পিলটি দিয়ে ফেমিকন খাওয়া শুরু করুন।

৩। পরের দিন থেকে প্রতিদিন নিয়মিত একই সময়ে সরু তীর চিহ্ন অনুসরন করে একটি করে পিল খেতে থাকুন, প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে, যেমন রাতে শােবার আগে।

৪। প্রতিদিন একটি করে ২১ দিনে ২১টি সাদা পিল খাওয়ার ঠিক পরদিন থেকে প্রতিদিন একটি করে ৭ দিনে ৭টি বাদামী রং-এর পিল খেতে হবে।

৫। বাদামী রং-এর পিল খাওয়াকালীন সম্ভবত আপনার মাসিক হবে। মাসিক আরম্ভ হলেও বাদামী রং এর পিল খাওয়া বন্ধ করবেন না। বাদামী পিল নিয়মিত ভাবে ৭ দিন খেলে লৌহ স্বল্পতা পরিপূরণ ছাড়াও পিল খাওয়ার নির্দেশিত নিয়ম ঠিক থাকবে। এই সময়ের মধ্যে আপনার মাসিক শুরু না হয়ে থাকলে, আপনি অন্তঃসত্ত্বা কিনা, তা নিরুপণের জন্য ডাক্তার দিয়ে পরীক্ষা করান।

৬। পাচ বাদামী পিল শেষ হওয়ার পরদিন থেকেই উপরের নিয়ম অনুযায়ী নতুন একটি ফেমিকন পাতার পিল খাওয়া শুরু করতে হবে। যতদিন আপনি আর একটি সন্তান না চাইবেন, ততদিন একই নিয়মে পিল খাওয়া চালিয়ে যেতে হবে।

ফেমিকন পিল
ফটোঃ ফেমিকন পিল

পিল খেতে ভুলে গেলে কি করা উচিৎ

১। যদি কোন কারনে একদিন পিল খেতে ভুলে যান, তবে পরদিন যখনই মনে পড়বে, তখনই ভুলে যাওয়া পিলটি খেয়ে নিবেন। তাছাড়া ঐ দিনের পিলটিও নির্দিষ্ট সময়ে খেতে হবে। অর্থাৎ ঐ দিন আপনাকে দুটো পিল খেতে হবে।

২। যদি কোন কারনে পর পর দুদিন পিল খেতে ভুলে যান তাহলে মনে পড়ার সাথে সাথে দুটি পিল এবং পরদিন আবার দুটি পিল খেতে হবে এবং এই পিলের পাতা শেষ না হওয়া পর্যন্ত পিলের সাথে অন্য একটি পদ্ধতি যেমন কনডম ব্যবহার করতে হবে। তবে মাসিক নিয়মিত রাখার জন্য অবশিষ্ট পিলগুলাে প্রতিদিন ১টি করে যথা নিয়মে খেতে হবে। এবং পরবর্তী মাসিকের প্রথম দিন থেকেই নতুন একটি প্যাকেটের উপরের সারির সাদা পিলের প্রথম পিল দিয়ে খাওয়া আবার শুরু করতে হবে।

৩। কিছু কিছু ঔষধ পিলের কার্যকারিতায় বাধা দান করে থাকে। আপনি যদি এন্টিবায়ােটিক, রিফামপিসিন অথবা বেদনানাশক কোন ঔষধ সেবন করেন, তা হলে আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন। এই সময়ে আপনাকে অন্য কোন জন্মবিরতিকরণ পদ্ধতি ব্যবহার করতে হতে পারে।

যে সব ক্ষেত্রে ফেমিকন খাওয়া নিষিদ্ধ

  • যদি আপনি গর্ভবতী হয়ে থাকেন
  • যদি আপনার বয়স ৪৫ বছরের বেশী হয়ে থাকে।
  • যদি আপনি অতি ধূমপায়ী অর্থাৎ দিনে ২০টি সিগারেট-এর বেশী পান করে থাকেন
  • যদি আপনার হৃদরােগ, ধমনীতে রক্ত জমাট বাঁধা রােগ থাকে।
  • যদি আপনার লিভারের কোন অসুখ হয় অথবা আপনি জন্ডিসে আক্রান্ত হয়ে থাকেন।
  • যদি আপনি উচ্চ রক্ত চাপ, তীব্র মাথা ব্যথা, স্তনের ভেতরে গােটা বা শক্ত কিছু বােধ করেন, অত্যধিক রক্তস্রাব যার কারণ নির্ণয় হয়নি এসব অসুবিধা প্রত্যক্ষ করেন।

দাম

২০২২ সালে ফেমিকনের দাম হচ্ছে মাত্র ৩০৳, ২০২১ সালের তার দাম ছিলো ৩০ টাকা, এবং সবকিছু ঠিক থাকলে ২০২৩ সালে ফেমিকনের দাম হবে ৩০৳

ফেমিকন খাওয়ার কতদিন পর মাসিক হয়

ফেমিকন খাওয়ার সাধারণ নিয়ম হচ্ছে যেদিন থেকে মাসিক শুরু হয় সেদিন থেকে শুরু করা, উপরের নিয়ম অনুযায়ী চালিয়ে গেলে বাদামী বর্ণের পিল খাওয়া অবস্থায় মাসিক শুরু হবে।

ফেমিকন পিল খাওয়ার কতদিন পর সহবাস করা যায়

ফেমিকন খাওয়ার সাধারণ নিয়ম হচ্ছে যেদিন থেকে মাসিক শুরু হয় সেদিন থেকে শুরু করা, যেহেতু মাসিক অবস্থায় সহবাস করা ইসলামিক কিংবা মেডিকেল সাইন্সে নিষিদ্ধ সেহেতু মাসিক শেষ হলেই সহবাস শুরু করতে পারবেন।

পিল ব্যবহারকারিণীদের মধ্যে গুরুতর বিরূপ প্রতিক্রিয়ার বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে। তবে আপনি যদি স্বাস্থ্যবতী হন এবং ধূমপানে আসক্ত না হয়ে থাকেন, তা হলে এসব বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সম্ভাবনা কম।

খাবার পিল শুরু করার পর যদি আপনি কোন অসুবিধা, যেমন মাইগ্রেন, দৃষ্টিশক্তি অথবা বাকশক্তি পরিবর্তন, পায়ে অস্বাভাবিক ব্যথা বা ফুলে যাওয়া, বুকে তীব্র ব্যথা অথবা শ্বাসকষ্ট, চামড়ার হলুদ বর্ণ অথবা রক্তচাপ বেড়ে যাওয়া ইত্যাদি অনুভব করেন, তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ নিন অথবা নিকটস্থ কোন পরিবার পরিকল্পনা ক্লিনিকের সাথে যােগাযােগ।

Source: https://www.smc-bd.org/femicon

বিঃদ্রঃ  এই ব্লগের প্রত্যেকটা ব্লগ পোস্ট Sylhetism ব্লগের নিজস্ব ডিজিটাল সম্পদ। কেউ ব্লগের কোন পোস্ট কিংবা আংশিক অংশ ব্লগের কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া কপি পেস্ট করে অন্য কোথাও প্রকাশ করলে ব্লগ কর্তৃপক্ষ ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা করার অধিকার রাখে। এবং অবশ্যই কপিরাইট ক্লাইম করে যে মাধ্যমে এই ব্লগের পোস্ট প্রকাশ করা হবে সেখানেও কমপ্লেইন করা হবে।

Sylhetism ব্লগের কোন লেখায় তথ্যগত কোন ভুল থাকলে আমাদের Contact পেইজে সরাসরি যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো, আমরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তথ্য যাচাই করে লেখা আপডেট করে দিবো।

Sylhetism ব্লগের কোন স্বাস্থ বিষয়ক পোস্টের পরামর্শ নিজের বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করার আগে অবশ্যই বিশেষজ্ঞদের মতামত নিবেন, আমরা স্বাস্থ বিষয়ে কোন বিশেষজ্ঞ না, আমাদের উদ্দেশ্য ও লক্ষ হচ্ছে সঠিক তথ্য পরিবেশন করা। সুতারাং কোন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার দায়ভার অবশ্যই আমরা নিতে পারবো না। ধন্যবাদ, ব্লগ কর্তৃপক্ষ।

You cannot copy content of this page